চট্টগ্রামে প্রথমবারের মতো দুর্যোগ সহনীয় ঘর পেল হাটহাজারীর ১৬টি পরিবার

0

চট্টগ্রামে প্রথমবারের মতো দুর্যোগ সহনীয় ঘর পেল হাটহাজারীর মোনাই ত্রিপুরা পাড়ার ১৬টি পরিবার। পাহাড়ের ঢালে ঝুঁকিপুর্ণভাবে বসবাস করা ক্ষুদ্র নৃগোষ্টির মানুষ সমতলে পাকা ঘর পেয়ে খুশি। তাদের দাবি, শিক্ষা চিকিৎসাসহ আধুনিক সুযোগ সুবিধা পেলে দেশের উন্নয়নে অবদান রাখতে পারবেন তারাও। আর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বললেন, অবহেলিত জনগোষ্টিকে সমাজের মুল ধারায় ফিরিয়ে আনার পাশাপাশি যানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সরকারি প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করছে প্রশাসন।

২০১৮ সালে হামে আক্রান্ত হয়ে চার শিশুর মৃত্যুর পর হাটহাজারীর দুর্গম পাহাড়ে ঝুঁকিপুর্ণভাবে বাস করা ত্রিপুরা পাড়াটির সন্ধান পায় উপজেলা প্রশাসন। দুই বছরে ধসসহ কয়েকটি প্রাকৃতিক দুর্যোগের মুখোমুখি হয় ক্ষুদ্র নৃগোষ্টির এই পাড়াটি। সাম্প্রতিক সময়ে তাদের রক্ষায় এগিয়ে আসে সরকার। দুর্যোগ সহনীয় ঘর প্রকল্পের প্রথম ১৬টিই বরাদ্দ দেয়া হয় মোনাই ত্রিপুরা পাড়ার বাসিন্দাদের। ৫৬টি পরিবারের মধ্যে অপেক্ষাকৃত বেশি ঝুঁকিপুর্ণ পরিবারগুলোকে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে ঘরগুলো। এতে খুশি অসহায় এসব মানুষ। ঘুর্ণিঝড়, জলোচ্ছ্বাস, পাহাড়ধসের মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগেও এসব এলাকার মানুষকে আশ্রয়কেন্দ্রে নিয়ে আশা চ্যালেঞ্জ হয়ে দাড়ায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের। তাই দুর্যোগ সহনীয় ঘর তাদের জানমালের নিরাপত্ত্বার নিশ্চিত করবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বললেন, এতদিন লোকচক্ষুর আড়ালে থাকলেও এখন এই পাড়াকে ঘিরে একগুচ্ছ পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। দুর্যোগ সহনীয় বাসস্থানের বাইরেও দুই কিলোমিটার রাস্তা, সোলার ও পল্লী বিদ্যুত সংযোগ, মন্দীর ভিত্তিক গণশিক্ষা চালু এমনকি শিশুদের জন্য খেলার মাঠ তৈরী করা হচ্ছে মোনাই ত্রিপুরা পাড়াকে ঘিরে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন