খুলনা করোনা হাসপাতাল ও এর আশেপাশে যত্রতত্র ফেলা হচ্ছে মেডিকেল বর্জ্য

0

খুলনা করোনা হাসপাতাল ও এর আশেপাশে যত্রতত্র ফেলা হচ্ছে মেডিকেল বর্জ্য। শুধু হাসপাতালের বাইরেই নয়, ভেতরেও করোনা রোগীদের বাথরুম ভয়াবহ অপরিচ্ছন্ন বলে অভিযোগ করছে ভুক্তভোগীরা। এসব নিয়ে খুলনা সিটি কর্পোরেশন এবং করোনা হাসপাতালের দায়িত্বে থাকা প্রতিষ্ঠান- কেএমসি ও সিভিল সার্জন কার্যালয়ের কোনো মনোযোগ নেই। এতে আরো বাড়ছে করোনা সংক্রমণের শঙ্কা।

করোনা আক্রান্ত রোগীদের সেবা দেয়ার জন্য খুলনা বিভাগের একমাত্র হাসপাতাল এটি। এখানে এক’শ রোগীর সেবা দেয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। ইতিমধ্যেই ভর্তি রয়েছে ৯৫ জন। নতুন করে এখানে আর কোনো রোগীর সেবা দেয়া সম্ভব নয়।

এরকম পরিস্থিতিতে হাসপাতালের চিকিৎসক-রোগীদের ব্যবহৃত মাস্ক, হ্যান্ড গ্লাভস, হেড কভার, সু-কভারসহ বিভিন্ন বর্জ্য প্রতিদিন ফেলা হচ্ছে উন্মুক্ত স্থানে।ফলে, হাসপাতালের এক’শ গজের মধ্যে থাকা খুলনা সিএন্ডবি কলোনীর কয়েক হাজার বাসিন্দাসহ নগরবাসী স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়েছে।

বর্জ্য ব্যবস্থাপনার দায় নিতে নারাজ সিভিল সার্জন। তিনি বলেন, করোনা হাসপাতালের বর্জ্য অপসারণের দায়িত্ব খুলনা সিটি করপোরেশনের।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও বলছে, দ্রুত বর্জ্য অপসারন না করলে সংক্রমন ছড়িয়ে পড়বে।

নগরীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকা কেসিসি জানিয়েছে তাদের সীমাবদ্ধতার কথা।

খুলনা ডায়াবেটিক হাসপাতালটিকে করোনা রোগীদের জন্য বরাদ্দ করায় আশ্বস্ত হয় বিভাগের মানুষ। কিন্তু, অপরিচ্ছন্নতার ফলে দিন দিন সংক্রমণের আশংকা বাড়ছে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন