খুলনায় দীর্ঘদিন ধরে নষ্ট হয়ে পড়ে আছে স্বয়ংক্রিয় ট্রাফিক সিগন্যাল সিস্টেম

0

খুলনায় দীর্ঘদিন ধরে নষ্ট হয়ে পড়ে আছে স্বয়ংক্রিয় ট্রাফিক সিগন্যাল সিস্টেম। নগরীর ট্রাফিক ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রনে হাত ও বাঁশিই সম্বল ট্রাফিক পুলিশের। বেপরোয়া রিক্সা, ভ্যান, বাস, ট্রাকসহ বিভিন্ন ধরণের যানবাহন চলায় মহানগরীতে প্রতিনিয়ত সৃষ্টি হয় যানজট। প্রায়ই ঘটছে ছোট-বড় দুর্ঘটনা। সিগনালিং সিষ্টেম সচল না থাকায় সড়ক নিয়ন্ত্রনে হিমশিম খাচ্ছে ট্রাফিক বিভাগ।খুলনা থেকে রকিবুল ইসলাম মতির প্রতিবেদন। জানাচ্ছেন : নুপা-নুর।

খুলনা সিটি কর্পোরেশন এলাকার ট্রাফিক নিয়ন্ত্রনে ৮০’র দশকে নগরীর শিববাড়ি মোড়, ফেরিঘাট, ডাকবাংলো, পিকচার প্যালেস মোড়, রয়েল মোড়সহ ১৬টি পয়েন্টে স্বয়ংক্রিয় ট্রাফিক সিগন্যাল বাতি স্থাপন করা হয়। কিন্তু, অল্প কিছুদিন পর সবগুলো বাতিই নষ্ট হয়ে যায়।

নতুন করে বাতি বসানো হলেও পদ্ধতিগত ত্রুটির কারণে তা অকেজো পড়ে থাকে। গত তিন দশক পার হলেও সচলের উদ্যোগ নেয়নি কোনো প্রশাসন। এ অবস্থায় হাত নেড়ে ও বাঁশি দিয়ে যান নিয়ন্ত্রন করতে হচ্ছে ট্রাফিক বিভাগকে। অনিয়ন্ত্রিতভাবে চলায় হচ্ছে যানজট, ঘটছে দুর্ঘটনা।

সিটি করপোরেশনকে নতুন করে সিগনালিং ব্যবস্থা স্থাপন করতে হবে। অথবা, পুলিশের কাছে ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট ছেঁড়ে দিলে জনগন উপকৃত হবে বলে মনে করেন, এই কর্মকর্তা ।

সিটি কর্পোরেশন ও ট্রাফিক বিভাগ যৌথ সভা করে নতুন সিদ্ধান্ত নিতে হবে বলে জানায়, কেসিসি। নগরীতে স্বয়ংক্রিয় সিগন্যাল বাতি চালু হলে যানজট নিরসনসহ ট্রাফিক নিয়ন্ত্রন ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা ফিরে আসবে বলে মনে করেন, নাগরিক নেতারা। নগরীর ট্রাফিক সিষ্টেমের উন্নয়ন ও জনজীবনে স্বস্তি আনতে কার্যকর ব্যবস্থা দেখতে চায় খুলনাবাসী।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন