শুক্রবার, জুলাই ১

পুরো খাগড়াছড়ি জেলায় রয়েছে বিভিন্ন জাতি-গোষ্ঠীর বৈচিত্রময় সংস্কৃতি ও জীবনধারা। এসব জাতিগোষ্ঠীর মধ্যে সবচেয়ে বৈচিত্রময় সংস্কৃতির অধিকারী মারমা জনগোষ্ঠী। এসব দেখে মুগ্ধ হয় সেখানে ঘুরতে যাওয়া পর্যটকরা।

পাহাড়ি জনসংখ্যায় খাগড়াছড়িতে দ্বিতীয় স্থানে মারমা সম্প্রদায়। অন্য জাতিগোষ্ঠীর চেয়ে সবচে বৈচিত্র্যময় জীবনাচার, ধর্মীয় কার্যক্রম, খেলাধুলা, নাচ-গানসহ ও বনার্ঢ্য সংস্কৃতির অধিকারী এই নৃগোষ্ঠী।নিজেদের ঐতিহ্যময় সংস্কৃতি নিয়ে গর্ব করার পাশাপাশি এসব সংরক্ষণ ও নানা পর্যায়ে ছড়িয়ে দেয়ার আহবান মারমা সম্প্রদায়ের সুশীল সমাজের।

মারমা ভাষায় প্রাথমিক শিক্ষা চালু করায় বর্তমান সরকারের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে শিক্ষকরা। সাধুবাদ জানান ভাষা সংরক্ষণে উদ্যোগ নেয়ায়। দেশের অর্ধশতাধিক ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর জীবনধারা, সংস্কৃতি, কৃষ্টি-কালচার সংরক্ষণের কাজ আইন অনুসারে চলছে বলে জানায় এই কর্মকর্তা।পার্বত্য এলাকার অন্য জনগোষ্ঠীর বেলায়ও সরকারকে উদ্যাগী হওয়ার দাবি সংশ্লিষ্টদের।

Share.

Leave A Reply