ক্যান্ডি টেস্টে শ্রীলংকার জয় প্রায় নিশ্চিত

0

ক্যান্ডি টেস্টে হারের অপেক্ষায় বাংলাদেশ। পঞ্চম ও শেষ দিনে জয়ের জন্য টাইগারদের প্রয়োজন ২৬০ রান। হাতে আছে মাত্র ৫ উইকেট। জয় কঠিন, তবে লিটন-মিরাজের অবিচ্ছিন্ন জুটির দিকে তাকিয়ে বাংলাদেশ। লিটন ১৪ এবং মিরাজ অপরাজিত ৪ রানে। এর আগে, তাইজুলের স্পিন ঘূর্ণিতে ৯ উইকেটে ১৯৪ রানে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে শ্রীলংকা। ৫ উইকেট নেন তাইজুল।

কি হতে পারে ক্যান্ডি টেস্টের ফলাফল? ক্রিকেট অনিশ্চিয়তার খেলা বলেই হয়তো অনুমান করা কঠিন। তবে, বড় কোন অঘটন না ঘটলে শ্রীলংকার জয় প্রায় নিশ্চিত সেটা বলাই যায়। কেন না শেষ দিনে বাংলাদেশের ২৬০ রানের বিপরীতে লঙ্গানদের প্রয়োজন মাত্র ৫ উইকেট।

৪৩৭ রানের বিশাল টার্গেট, হাতে দেড় দিনেরও বেশি সময়। অথচ কি তাড়াহুরো তামিম ইকবালের। ঠিক যেন বাড়ি ফেরার তাড়া। টানা তিন ইনিংসে অর্ধশতক তোলা দেশ সেরা ওপেনার ফিরেছেন ২৬ বলে ২৪ করে।

সাইফ- শান্ত’র ইনিংসগুলো বড় হতে পারেনি। বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের অল্পে তুষ্টির পুরনো অভ্যাস এদিনও মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে। প্রথম টেস্টের ব্যর্থতা কাটালেও ৩৪-এর বেশি করতে পারেননি সাইফ। শান্ত বন্দি ২৬-শের ঘরে। প্রথম ইনিংসে ৬ উইকেট নেয়া সেই জয়াবিক্রমার ঘূর্ণিবল বুঝতে পারেননি নাকি একটু হাল্কাভাবেই নিয়েছিলেন সাইফ-শান্ত?

শান্ত’র মতো মুমিনুলেরও একইভাবে বিদায়। পার্থক্যটা শুধু বোলারের। ৩২ রানে মেন্ডিস স্পিন কাটা পরেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

বিপদ যখন আসে তখন চার দিক থেকেই আসে, ভরসার প্রতীক মুশফিকের আউট তারই প্রমাণ।

প্রকৃতির আর্শীবাদে আর কোন বিপদ হয়নি দিনের বাকী সময়টায়। আলোর স্বল্পতায় ১২ ওভার বাকী থাকতেই শেষ চতুর্থ দিনের খেলা। লিটন-মিরাজ অবিচ্ছিন্ন জুটিতে পঞ্চম দিনে রোমাঞ্চকর কিছুর অপেক্ষায় বাংলাদেশ।

তামিম-শান্ত’দের ব্যর্থতার দিনে শুরুতে আলো ছাড়িয়েন তাইজুল ইসলাম। ২ উইকেটে ১৭ রান নিয়ে দিন শুরু করা লঙ্কানদের এদিন মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে দেননি বাহাতি স্পিনার। তাইজুলের ধ্বংসযজ্ঞ শুরু ১২ রান করা অ্যাঞ্জলা ম্যাথুউজকে ফিরিয়ে।

এরপর একে একে নিশাকা, রমেশ মেন্ডিস আর সুরাঙ্গা লাকমালকে ফিরিয়েছেন তাইজুল। আগের দিন ১ উইকেটসহ ক্যারিয়ারের অস্টম বারের মতো ৫ উইকেট শিকার বাহাতি স্পিনারের।

মাঝে মেহেদি-তাসকিনদের সাথে সাফল্যের মিছিলে যোগ দিয়েছেন সাইফ হাসানও। মিরাজের দুই উইকেটের বিপরীতে তাসকিন সাইফ হাসান নেন একটি করে উইকেট। তাতে ৯ উইকেটে ১৯৪ রানে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে শ্রীলংকা।

শেষ দিনে আত্মবিশ্বাসকে পূঁজি নামবে শ্রীলংকা। বিপরীতে ক্যান্ডি টেস্ট বাঁচানো সময়ের সাথে কঠিন থেকে কঠিনতর বাংলাদেশের।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন