কাঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌরুটে অচলাবস্থা সামাল দিতে ড্রেজিং শুরু

0

পদ্মা নদীতে পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে কাঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌরুটে লৌহজং টার্নিং পয়েন্ট এলাকায় ঘূর্নি স্রোতে পলি পড়ে নাব্য সংকট দেখা দিয়েছে । এতে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। অচলাবস্থা সামাল দিতে ড্রেজিং শুরু করেছে বিআইডব্লিউটিএ।

বর্ষা মৌসুমেই এ নৌরুটের লৌহজং টার্নিং পয়েন্টে ভয়াবহ ঘূর্নি স্রোত সৃষ্টি হয়ে পলি পড়ে চরম অচলাবস্থা দেখা দেয়। চলতি বছরও বর্ষার শুরুতেই পদ্মা নদীতে পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে এ নৌরুটের লৌহজং টার্নিং পয়েন্টে ঘূর্নি স্রোত সৃষ্টি হয়েছে। স্রোতের সাথে বয়ে আনা পলি পড়ে লৌহজং টার্নিং এ দ্রুত ডুবোচর সৃষ্টি হচ্ছে। ফলে মাঝে মাঝেই ডুবোচরে ফেরি আটকে পড়ছে। এতে ফেরি চলাচল মারাত্নকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। ফেরি পারাপারে দ্বিগুনেরও বেশি সময় লাগছে। ফলে ঘাট এলাকায় যানজট প্রকট আকার ধারন করায় পন্যবাহী ট্রাকের জট স্থায়ী রুপ নিয়েছে।

এদিকে, চাপ নেই পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে। সোমবার সরকারী ও বেসরকারী অফিস খুলেছে। কিন্তু এখনও ঈদ শেষে প্রিয়জন ছেড়ে আসতে শুরু করেনি দক্ষিণ- পশ্চিম অঞ্চলের ২১ জেলার মানুষ। ফলে পাটুরিয়া- দৌলতদিয়া নৌরুটে ফেরি অপেক্ষা করছে যানবাহনের জন্য। বিআইডব্লিউটিসির আরিচা কার্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত ডিজিএম মো. জিল্লুর রহমান বলেন এই নৌরুটে ছোট বড় মিলে ১৭টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। ফলে নদীতে স্রোত থাকার পারও ১৭টি ফেরি থাকায় যানাবহানের কোন চাপ নেই। দুই পারেই যানবাহন আসা মাত্রই ফেরিতে উঠতে পারছে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন