কাউন্সিলর ইরফান সেলিমকে বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নিয়েছে এলজিআরডি মন্ত্রণালয়

0

নৌবাহিনীর লেফটেন্যান্ট ওয়াসিফ আহমদ খানকে মারধরের মামলায় গ্রেফতার এবং রেবের ভ্রাম্যমান আদালতে করাদণ্ডপ্রাপ্ত ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইরফান সেলিমকে বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নিয়েছে এলজিআরডি মন্ত্রণালয়। তবে এখনো প্রজ্ঞাপন জারি করেনি। এদিকে, হাজী সেলিমের পুত্র ইরফান ও তার দেহরক্ষীকে আজ অস্ত্র মামলায় আদালতে তোলার কথা থাকলেও কারাগারে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে রাখায় তা সম্ভব হয়নি। ওদিকে, ইরফানের ব্যক্তিগত সহকারীকে তিন দিনের রিমাণ্ডে নিয়েছে গোয়েন্দা পুলিশ।

সোমবার গভীর রাতে এরফানের ব্যক্তিগত সহকারী এবি সিদ্দিক দীপুকে টাঙ্গাইল থেকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ। মঙ্গলবার এবি সিদ্দিক দীপুকে আদালতে হাজির করে ৭ দিনের রিমাণ্ড চাওয়া হয়। তবে তার আইনজীবী রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম সত্যব্রত শিকদার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রোববার রাতে কলাবাগানে নৌবাহিনীর কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ওয়াসিফকে মারধরসহ তাঁর স্ত্রীকেও লাঞ্ছিত করার অভিযোগে ইরফান, তার বডগার্ড ও গাড়িচালককে গ্রেফতার করা হয়। সোমবার দুপুরে ইরফানের চকবাজারের বাড়িতে ৯ ঘণ্টা অভিযান চালায় রেব। অভিযানে বিদেশী মদ, অবৈধ দুটি আগ্নেয়াস্ত্র, ৩৮টি নিষিদ্ধ ওয়াকিটকি এবং হ্যান্ডকাপ উদ্ধার শেষে ইরফান ও তার বডিগার্ডকে একবছর করে কারাদন্ড দেয় রেবের ভ্রাম্যমান আদালত। এদিকে, স্থানীয় সরকার আইন অনুযায়ী এ অপরাধের জন্য ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ৩০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদ থেকে ইরফান আহমেদ সেলিমকে বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রণালয়।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন