করোনা ভাইরাসের প্রভাবে সাতক্ষীরায় হুমকির মুখে পড়েছে চিংড়ী শিল্প

0

করোনা ভাইরাসের প্রভাবে সাতক্ষীরায় হুমকির মুখে পড়েছে চিংড়ী শিল্প। রপ্তানি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় জেলার স্থানীয় বাজারে গলদা ও বাগদা চিংড়ীর দাম অস্বাভাবিকভাবে কমে যাওয়ায় ব্যাপক ক্ষতির মুখে ঘের মালিকরা। ক্ষতি কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়াতে সরকার ঘোষিত প্রণোদনার পাশাপাশি ব্যাংক ঋণ মওকুফের দাবি জানিয়েছেন চিংড়ী ঘের মালিকরা।

সাতক্ষীরায় ছোট-বড় মিলিয়ে ৭০ হাজার চিংড়ি ঘের রয়েছে। এ সব ঘেরে গলদা ও বাগদা চিংড়ী চাষ হয়ে থাকে। চলতি বছর করোনার প্রভাবে হুমকির মুখে পড়েছে চিংড়ী শিল্প । বিদেশে রপ্তানি ও কারখানা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় স্থানীয় বাজারে চিংড়ী বাজারজাত করা অসম্ভব হয়ে পড়েছে। গলদা ও বাগদা চিংড়ী মাছের অস্বাভাবিক দরপতন হওয়ায় লোকসান গুনতে হচ্ছে ঘের মালিকদের। সময় মতো ব্যাংক ঋণ ও সমিতির কিস্তি নিয়ে দুঃ চিন্তাই রয়েছেন তারা।

সরকার ঘোষিত প্যাকেজ দেওয়ার পাশাপাশি ব্যাংক সুদ মওকুফের দাবি জানিয়েছেন চিংড়ী চাষি সমিতি। করোনার প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্থ চিংড়ী চাষীদের ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে সহজ শর্তে সুদমুক্ত ঋণের জন্য উচ্চ পর্যায়ে সুপারিশ করা হয়েছে বলে জানালেন জেলা মৎস্য কর্মকর্তা।

ক্ষতিগ্রস্থ চিংড়ী চাষীদের ডাটাবেজ তৈরি করে সুদ মওকুফসহ সহজ শর্তে ঋণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে জানালেন জেলা প্রশাসক।  দেশের বৃহৎ এই অর্থনৈতিক খ্যাতকে টিকিয়ে রাখতে সরকার সহযোগিতার হাত বাড়ি দিবেন-এমনটা প্রত্যাশা চিংড়ি ঘের মালিকদের।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন