করোনা পরবর্তী সময়ে দেশে বেকারেরসংখ্যা বাড়তে পারে ব্যাপকহারে

0

করোনা পরবর্তী সময়ে দেশে বেকারেরসংখ্যা বাড়তে পারে ব্যাপকহারে। কমে আসবে রেমিট্যান্সপ্রবাহও। ফলে ঘাটতি দেখা দিতে পারে রাজস্ব আয়েও। তাই এবার বাজেটে সুনির্দিষ্ট কয়েকটিখাতে বরাদ্দ বাড়ানোর তাগিদ দিয়েছেন বিশ্লেষকরা। দাবি জানিয়েছেন, সবার জন্য স্বাস্থ্যবীমারও। তবে কেবল বরাদ্দ দিলেই চলবে না, লাগাম টেনে ধরতে হবে দুর্নীতিরও।

করোনা মহামারির মধ্যেই এবার প্রস্তুত হচ্ছে ২০২০-২০২১ অর্থবছরের জাতীয় বাজেট। তবে কেমন হতে যাচ্ছে এবারের বাজেট কিংবা কোন কোনখাতে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে বেশি-এমন প্রশ্ন অনেকেরই। বিশ্লেষকরা বলছেন, আসছে অর্থবছরে বেসরকারিখাতে বিনিয়োগ কমবে। বাড়বে দারিদ্রতাও। এজন্য পরিস্থিতি মোকাবেলায় এবার কয়েকটি খাত ধরে ধরে বরাদ্দ বাড়াতে হবে।

করোনা মোকাবেলা করতে গিয়ে স্বাস্থ্যখাতের ভঙ্গুর অবস্থা উন্মোচিত হয়েছে। তাই এখাতে মোট জিডিপির ৪শতাংশ বরাদ্দ দেয়ার দাবি তুলেছেন অনেকেই।পাশাপাশি সেবামূলক এখাতটি সুরক্ষায় দুর্নীতির লাগামও টেনে ধরতে সরকারকে কঠোর হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তারা।

তবে করোনা পরবর্তী খাদ্য পরিস্থিতি মোকাবেলায় এবারো কৃষিতে অধিক বরাদ্দ ও ভর্তুকি বাড়াতে হবে।গার্মেন্টসহ বিভিন্ন বড় বড় ব্যবসাখাতগুলোর পাশাপাশি ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের রক্ষায় বরাদ্দ দেয়াও জরুরি। আগামী ১১ জনু জাতীয় সংসদে বাজেট উত্থাপন করবেন অর্থমন্ত্রী। এবার বাজেটে সাম্ভব্য আকার ধরা হয়েছে ৫ লাখ ৫০ হাজার কোটি টাকা। যা চলতি অর্থবছরের চেয়ে ৫ শতাংশ বেশি।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন