এসি মিলানে বিধ্বস্ত শিরোপা প্রত্যাশি জুভেন্টা

0

এসি মিলানে বিধ্বস্ত শিরোপা প্রত্যাশি জুভেন্টাস। সিরি আ’ লিগে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা জুভিদের ৪-২ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে ইব্রাহিমোবিচরা। দীর্ঘ চার বছর পর জুভেন্টাসের বিপক্ষে লিগ ম্যাচে বড় জয় মিলান জায়ান্টদের। এদিকে, ইংলিশ লিগে ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে ৩-২ গোলের রোমাঞ্চকর জয় পেয়েছে চেলসি। তবে, হোচট খেয়েছে আর্সেনাল। লেস্টারের সঙ্গে ড্র করেছে ১-১ গোলে।

সিরি আয় শিরোপা ধরে রাখার মিশনে হাত ছোঁয়া দূরত্বে জুভেন্টাস। তাই আত্মবিশ্বাসে এগিয়ে থেকে এদিন মাঠে নামে রোনালদোরা। তবে, হঠাৎ-ই যেন স্পট লাইটটা ঐতিহ্যের এসি মিলানে। কেননা চার মৌসুম পর সিরি আয় জুভেন্টাসের বিপক্ষে জয় উৎসব করেছে মিলান। তাও আবার পিছিয়ে থেকে।

তার আগে, ছয় গোলের ম্যাচে প্রথমার্ধটা গোল খরায় কাটার পর দ্বিতীয়ার্ধে শুরুতেই লিড নেয় জুভেন্টাস, আদ্রিয়া রাবিও’র নৈপূর্ণে।

মিনিট ছয়েক পরেই ব্যবধান দ্বিগুণ বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। এবার স্পট লাইটে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। মৌসুমে এটি ২৬তম গোল সি আর সেভেনের।

তবে, কে জানতো রোনালদোদের এই উৎসব ম্যাচ শেষে পরিণত হবে হাতাশায়। ৬২ মিনিটে স্পট কিকে মিলানকে ম্যাচে ফেরান ইব্রাহিমোবিচ। চার মিনিটের ব্যবধানে দলকে সমতায় ফেরান ফ্রাঙ্ক কেসি।

জুভিদের হতশ্রি দশায় পরের সময়টাতে জ্বলেছে স্বাগিতকরা। সবাই কে চমকে রাফায়েল লিয়াওরা এভাবেই তৈরী করছিলেন সফরকারীদের বড় হারের রাস্তা।

মিলানের এগিয়ে যাওয়ার গল্পে যেন গোল উপহার দিলেন অ্যালেক্স সান্দ্রো। তার ভুলে ভুল করেননি রেবিক। তাতে সাত ম্যাচ পর হারের স্বাদ পেল শীর্ষে থাকা জুভেন্টাস। তারপরও লাতসিও’র সাথে ৭ পয়েন্টে এগিয়ে চ্যাম্পিয়নরা।

ইপিএলে রোমাঞ্চ ছড়িয়েছে চেলসি-ক্রিস্টাল প্যালেস ম্যাচ। ২ গোলে পিছিয়ে থেকেও ম্যাচে ফেরে ক্রিস্টাল প্যালেস। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। জয় নিশ্চিত করেছে ল্যাম্পার্ডের দল।

ব্লুদের জয়ে অবদান রাখেন অলিভার জিরুদ, ক্রিস্টিয়ান পরিসিচ ও টমি আব্রাহাম। বিপরীতে ক্রিস্টালকে ম্যাচে রেখেছিলেন বেনটেক ও জাহা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন