এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাসের হার ৮২ দশমিক ৮৭ ভাগ

0

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় সব শিক্ষা বোর্ডে পাসের গড় হার ৮২ দশমিক আট সাত শতাংশ। গত বছরের চেয়ে এবার বেড়েছে পাসের হার।জিপিএ ফাইভ পেয়েছে ১ লাখ ৩৫ হাজার ৮’শ ৯৮ শিক্ষার্থী। ছেলেদের চেয়ে পাসের হারে এগিয়ে রয়েছে মেয়েরা। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইন্সটিটিউটে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য তুলে ধরেন শিক্ষামন্ত্রী ডাক্তার দীপু মনি। এর আগে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ফলাফল প্রকাশে যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে এবার এসএসসি’র ফলাফল প্রকাশে নেই শিক্ষার্থীদের চিরচেনা সেই উল্লাস। করোনা পরিস্থিতির কারণে ওয়েব সাইট ও মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ফলাফল জানতে পারবে শিক্ষার্থীরা।

রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে মাধ্যমিক, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি,দাখিল ও সমমানের পরীক্ষার ফল তুলে ধরেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এর আগে ফলাফলের সারসংক্ষেপ শিক্ষামন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর করেন শিক্ষা বোর্ডগুলোর চেয়ারম্যানরা।

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় এবার ২০ লাখ চল্লিশ হাজার ২৮ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে পাস করেছে ১৬ লাখ ৯০ হাজার ৫’শ ২৩ জন শিক্ষার্থী। সার্বিক ফলাফলে সন্তোষ প্রকাশ করেন শিক্ষামন্ত্রী ডাক্তার দীপু মনি।

সারাদেশে পাস করা পরীক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্র ১০ লাখ ২১ হাজার ৪’শ ৯০ জন এবং ছাত্রী ১০ লাখ ১৮ হাজার ৫’শ ৩৮ জন। চলতি বছর পরীক্ষায় ছাত্রের তুলনায় ছাত্রীদের পাসের হার ২ দশমিক ৪৭ শতাংশ বেশি।

৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয় ১৬ লাখ ৩১ হাজার ৩’শ ৮জন শিক্ষার্থী। পাস করেছে ১৩ লাখ ৬৬ হাজার ২’শ ১৮ জন শিক্ষার্থী। মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডে ২ লাখ ৭৬ হাজার ৮’শ ১৫ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাস করেছে ২ লাখ ২৮ হাজার ৪’শ ১০ জন। আর কারিগরি শিক্ষাবোর্ডে ১ লাখ ৩১ হাজার ৯’শ পাঁচ জনের মধ্যে পাস করেছে ৯৫ হাজার ৮’শ ৯৫ জন শিক্ষার্থী।

এ বছর জিপিএ- ফাইভ পেয়েছে ১ লাখ ৩৫ হাজার ৮’শ ৯৮ জন। গত বছর জিপিএ-ফাইভ পেয়েছিল ১ লাখ ৫ হাজার ৫৯৪ জন শিক্ষার্থী।

শতভাগ পাস করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা এবার ৩ হাজার ২৩টি। গতবার যা ছিলো ২ হাজার ৫’শ ৮৩টি। ১’শ ৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে কেউ পাস করেনি।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন