উন্নয়নে বাজেট বাড়লেও রেলে মিলছে না কাঙ্খিত সেবা

0

প্রতি বছর রেলের উন্নয়নে বাড়ছে বাজেট। মিলছে না কাংখিত সেবা। লাভের মুখও দেখতে পাচ্ছে না প্রতিষ্ঠানটি। স্বাধীনতা পরবর্তী রেলের এমন চিত্র সব সরকারের আমলে। আর রেলমন্ত্রী বলছেন, লাভের মুখ দেখতে হলে আপেক্ষা করতে হবে ২০৪৫ সাল পর্যন্ত। কিন্তু কেন? এমন প্রশ্নে বিশেষজ্ঞরা বলছেন এ খাতে অনিয়ম-দুর্নীতি আর অদক্ষতায় প্রতি বছর শত শত কোটি টাকা লোকসান দিতে হচ্ছে।

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের তথ্য বলছে , ২০২১-২২ অর্থবছরের রেল বাজেট ১৭ হাজার ৪৮৬ কোটি টাকা। আর ২০০৯ সাল থেকে এ পর্যন্ত মোট বরাদ্দ প্রায় ১ লাখ ২ হাজার কোটি টাকা। একই সঙ্গে আগামী ৩০ বছর অর্থাৎ ২০১৬-৪৫ সাল পর্যন্ত মেয়াদে ৫ লাখ ৫৩ হাজার ৬৬২ কোটি টাকার মহাপরিকল্পনা নেয়া হয়েছে।

চলমান ৪১ উন্নয়ন প্রকল্পে মোট বরাদ্দ ১ লাখ ৪২ হাজার ১৯৪ কোটি টাকা। এসব প্রকল্পের অধিকাংশ একাধিকবার সংশোধন করা হয়েছে। মেয়াদ বৃদ্ধির সঙ্গে বাড়েছে ব্যয়ও। অনেক প্রকল্পে নির্ধারিত ব্যয়ের চেয়ে গড়ে ৬ গুণ পর্যন্ত ব্যয় বেড়েছে।
বিশেষজ্ঞরা বলছেন , রেলে দক্ষ জনবলের অভাব। তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে দুর্নীতি।

এত বিনিয়োগ আর পরিকল্পনা বাস্তবায়নের মধ্যেও রেল লোকসান গুনেই চলেছে। এক যুগে প্রায় ১৪ হাজার কোটি টাকা লোকসান দিয়েছে সংস্থাটি। এর মধ্যে গত ২ অর্থবছরেই লোকসানের খাতায় যোগ হয়েছে প্রায় পৌনে চার হাজার কোটি টাকা।
এতো কিছুর পরেও রেল কেন লোকসান গুনছে এমন প্রশ্নে সরকারের সঠিক নজর দারির অভাবকের দুষলেন বিশেষজ্ঞরা।

রেলপথমন্ত্রীর দাবি, ২০০৯ সালের আগে রেলপথ ছিল অবহেলিত। বর্তমান সরকার রেলের উন্নয়নে কাজ করছে। তবে চলমান উন্নয়ন প্রকল্পে অনিয়ম না হওয়ার দাবী করে তিনি জানান, রেলকে লাভজনক করতে নেয়া হয়েছে নানা মুখিপরিকল্পনা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন