ঈদের আমেজ কাটিয়ে মানুষের ভিড় বাড়তে শুরু করেছে রাজধানীতে

0

ঈদের আমেজ কাটিয়ে করোনা পরিস্থিতিতে মানুষের ভিড় বাড়তে শুরু করেছে রাজধানীর রাস্তাঘাট ও অলি-গলিতে। ঈদুল ফিতর উপলক্ষে কয়দিন রাজধানী অনেকটা জনশূন্য থাকলেও ৩১ মে থেকে সরকারি-বেসরকারি অফিস খুলে দেয়ার ঘোষণায় নগরীতে বাড়ছে মানুষের আনাগোনা। তবে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় কর্মমুখী মানুষ ব্যক্তিগত গাড়ির পাশাপাশি সিএনজি অটোরিকশা, মোটর চালিত রিকসা এমনকি ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলে কর্মস্থলে ফিরছেন। এজন্য তাদের গুণতে হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া।

করোনা মহামারির মধ্যে ঘরে থাকার মেয়াদ আর না বাড়িয়ে, ৩১ মে থেকে সীমিত পরিসরে অফিস খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

অফিস খোলার সংবাদে ঈদের আমেজ কাটতে না কাটতেই কর্মস্থল রাজধানীতে ফিরতে শুরু করেছেন কর্মজীবিরা। নগরীর অলি-গলি ও সড়ক-মহাসড়কে মানুষ ও যানবাহনের চলাচল বেড়েছে। তবে এখনো গণপরিবহন না থাকায়, ব্যক্তিগত গাড়ির পাশাপাশি সিএনজি চালিত অটোরিকশা, মোটর চালিত রিকসা ও মোটরসাইকেলে অতিরিক্ত ভাড়ায় কর্মস্থলে ফিরতে বাধ্য হচ্ছেন অনেকে।

৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত সংখ্যক যাত্রী নিয়ে গণপরিবহন চলাচলের অনুমতি দেয়া হয়েছে। তবে এ নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া জানায় সাধারণ মানুষ।

সব মিলিয়ে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে পুরনো আবহে ফিরতে শুরু করেছে রাজধানী। জীবনের পাশাপাশি জীবিকার বিষয় বিবেচনায় দোকান-পাট, ব্যবসা-বাণিজ্য ও অফিস আদালত খুলে দেয়া হলেও করোনা পরিস্থিতি অবনতির আশঙ্কা রয়েছে। যদিও ১৫ জুনের পর পরিস্থিতি বিবেচনায় পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়ার কথা জানিয়েছে সরকার।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন