অবশেষ জয়ের দেখা পেয়েছে বাংলাদেশ

0

টানা ছয় টেস্টের হারের পর অবশেষ জয়ের দেখা পেয়েছে বাংলাদেশ। মাত্র সোয়া তিন দিনেই ঢাকা টেস্ট হেরেছে জিম্বাবুয়ে। একমাত্র টেস্টে জিম্বাবুয়েকে ইনিংস ও ১০৬ রানের ব্যবধানে হারিয়েছে টাইগাররা। নাইম-তাইজুলের স্পিন ঘূর্ণিতে দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১৮৯ রানে অলআউট হয় সফরকারীরা। ম্যাচ সেরা হয়েছেন ডাবল সেঞ্চুরিয়ান মুশফিকুর রহিম।

সাদা পোশাকে জয়ের স্বাদ কেমন ? সেটা হয়তো ভুলতেই বসেছিলো বাংলাদেশ। টানা ছয় ম্যাচ হারার পর অবশেষে জয়ের মুখ দেখলো টিম টাইগার্স। জিম্বাবুয়েকে হারালো ইনিংস ও ১০৬ রানের ব্যবধানে। মাত্র সোয়া তিন দিনেই শেষ দু’দলের একমাত্র টেস্ট।

আগের দিনই ইনিংস পরাজয়ের শঙ্কা উকি দিয়েছিলো জিম্বাবুয়েন শিবিরি। চতুর্থ দিনে যা এড়ানো একমাত্র চ্যালেঞ্জ। কিন্তু সফরকারী ব্যাটসম্যানরা এদিনও পারেনি বাংলাদেশী বোলারদের চ্যালেঞ্জ জানাতে। আগের দিনের ৯ রানের সাথে ছ’রান যোগ করতে তাইজুল ফেরান কেভিন কাসুজাকে।

থিতু হবার চেস্টা ব্যর্থ ব্রেন্ডন টেইলরও। তাকে সাজঘরে পাঠান তৃতীয় দিন জোড়া উইকেট নেয়া নাইম হাসান।বাড়তে থাকা বিপদ– সামাল দেবার চেস্টায় অধিনায়ক ক্রেইগ আরভিন ও সিকান্দার রাজার। কিন্তু লাঞ্চ ব্রেকের আগেই ৪৩ রান করা আরভিন কাটা পড়েন রান আউটে। ভাঙে সিকান্দার রাজার সাথে ৬০ রানের জুটি।ব্রেকের পর ফিরে গেছেন সিকান্দার রাজাও। ৩৭ করা রাজাকে ফিরিয়েছেন তাইজুল ইসালাম। ততক্ষণে ইনিংস পরাজয় জিম্বাবুয়েনদের শুধুই আনুষ্ঠানিতা।

সপ্তম উইকেটে লড়াই চালান চাকাবা ও মারুমা। কিন্তু শেষ রক্ষায় হয়নি। থিতু হয়েও টিকতে পারেনি নাইম-তাইজুলের সামনে। তাদের ৪৪ রানের প্রতিরোধ ভাঙে চাকাবার ১৮ রানের বিদায়ে। প্রথম ইনিংসে পাঁচ উইকেটে না পাবার আক্ষেপ, নাইম মেটালেন ঢাকা টেস্ট জয়ের দিন। মারুমাকে ফিরিয়ে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয়বারের মতো পাঁচ উইকেট পেলেন তরুণ এই স্পিনার।

নাইমের যেখানে পাঁচ, তাইজুলের সেখানে চার উইকেট। শেষ ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে উইকেটের হালি পূর্ণ করেন তাইজুল ইসলাম। তাতেই ২০১৮ সালের পর প্রথমবার টেস্ট জয় উল্লাসে মাতে বাংলাদেশ।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন