ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে লিভারপুলের সামনে বাধা হতে পারল না এভারটন

0

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে দুর্দান্ত গতিতে এগিয়ে চলা লিভারপুলের সামনে বাধা হতে পারল না এভারটন। মার্সিসাইড ডার্বিতে গোল উৎসব করেছে অলরেডরা। এভারটনকে ৫-২ গোলে বিধ্বস্ত করেছে ক্লপের দল। এ জয়ে রেকর্ড ৩২ ম্যাচে অপরাজিত থাকলো লিভারপুল। এদিকে, ভিন্ন ম্যাচে জয়ে পেয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও চেলসি। ২-১ গোলে টটেনহামকে হারিয়েছে রেডডেভিলরা। আর একই ব্যবধানে অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে জয় ব্লুজদের।

প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস কিংবা উত্তাপ কিছুটা হলেও কম এবারের ইপিএল মৌসুমে। এখন পর্যন্ত একক আধিপত্য গেলো মৌসুমের রানার্সআপ লিভারপুলের। ব্যক্তিক্রম হয়নি এভারটনের বিপক্ষেও। মার্সিসাইড ডার্বিতে যেন আরো ভয়ঙ্কর ক্লপের দল। অ্যানফিল্ডে দিভক ওরিগি ও শাকিরি ১৭ মিনিটের মধ্যে দুই গোলের লিড এনে দেন অলরেডদের।

বিরতির আগেই ওরিগির দ্বিতীয় গোল ও সাদিও মানের অসাধারন ফিনিশিংয়ে ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারন করে ফেলে লিভারপুল।

মাঝে দু’বার ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিতও দিয়েছিলো এভারটন। কিন্তু মাইকেল কিন ও রিচার্লিসনের গোল ব্যবধানই কমিয়েছে মাত্র। বিরতিরপর অলরেডদের হয়ে উইজনালডাম আরও এক গোল। তাতেই বড় জয় নিশ্চিত হয় লিভারপুলের।

এদিকে, বিগ ম্যাচে টটেনহাম আতিথ্য দেয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ঠিক এক বছর পর ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে হোসে মরিনহো। তবে ঠিকানা এবার ভিন্ন ডাগআউট। ফর্মে ইউনাইটেডের চেয়ে স্পার্সরা এগিয়ে থাকায় আত্মবিশ্বাসীই দেখাচ্ছিলো দ্যা স্পেশাল ওয়ানকে।

কিন্তু সাবেক বসকে এতটুকু ছাড় না দেয়ার মানসিকতা নিয়ে মাঠে নেমেছিলো রেড ডেভিলরা। যার জবাবটাও ম্যাচের শুরুতেই দিয়েছেন মার্কাস রাশফোর্ড।

গোলের পরও থামেননি। স্পার্স রক্ষণকে রীতিমতো কাপিয়ে ছেড়েছিলেন এই ইংলিশ স্ট্রাইকার। কিন্তু ভাগ্যের পরিক্রমায় গোল বঞ্চিত রাশফোর্ড।

চাপে থাকা টটেনহাম অবশ্য ম্যাচে ফেরে প্রথমার্ধেই। জটলা ভেঙে ডেলে আলির গোলে সমতায় ফেরে অতিথিরা।

বিরতির পর আবারো দৃশ্যপটে মার্কাস রাশফোর্ড। এবার ফাউলের শিকার ইংলিশ ফরোয়ার্ড। তাতেই পেনাল্টি পায় ইউনাইটেড। স্পট কিকে নিজের জোড়া গোল আর দলের নিশ্চিত করেন রাশফোর্ড।

টটেনহামের দায়িত্ব নেয়ার পর প্রথম পরাজয় হোসে মরিনহোর। ঠিক তার সবশেষ ক্লাবের বিপক্ষে। যেখানে তিক্ততার বিদায় হয়েচিলো স্পেশাল ওয়ানের। আর তাতেই স্পার্সদের সরিয়ে তালিকার ছয়ে উঠে এলো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন