হারুণ চৌধুরী হত্যাকাণ্ডের ১০ দিন পরও গ্রেফতার হয়নি কেউ

0

চট্টগ্রামে যুবদল নেতা ও পরিবহণ ব্যবসায়ী হারুণ চৌধুরী হত্যাকাণ্ডের ১০ দিন পরও গ্রেফতার হয়নি কেউ। নিহতের পরিবারের দাবি, ভিডিও ফুটেজে খুনিদের পরিচয় স্পষ্ট হলেও রাজনৈতিক কারণেই পুলিশ সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করছে না। আর পুলিশ বলছে, পণ্য পরিবহন ব্যবসার নিয়ন্ত্রন নিয়েই এই হত্যাকাণ্ড হয়েছে। আর খুনিরা দ্রুত জায়গা বদলানোর ফলে গ্রেফতার করা সম্ভব হচ্ছে না।

বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণকে ইউনেস্কো স্বীকৃতি দেয়ায় গত ৩ ডিসেম্বর বিকেলে নগরীর কদমতলী এলাকায় আনন্দমিছিল বের করে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। (মিছিলের ফুটেজ-১) এসময় নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নিচে দাঁড়িয়ে ছিলেন যুবদল নেতা ও পরিবহন ব্যবসায়ী হারুণ চৌধুরী। হঠাৎ মিছিল থেকে কয়েকজন ছুটে এসে গুলি করে হারুণকে। মাটিতে লুটিয়ে পড়া হারুণকে পেটানোসহ তার শরীরের ওপর মোটরসাইকেল তুলে দিয়ে নিশ্চিত করা হয় মৃত্যু। (মোবাইল ফুটেজ- পড়ে থাকা হারুণের গায়ে মোটরসাইকেল তুলে দেয়ার অংশ)

নৃশংস এই হত্যাকাণ্ডের ১০ দিন পেরিয়ে গেলেও গ্রেফতার হয়নি কেউ। এতে ক্ষোভ জানায় হারুণের পরিবার। এদিকে, ব্যবসায়ীদের নিরাপত্তার স্বার্থে হারুণ হত্যার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচার দাবি করেছেন, ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান মালিক সমিতি।

খুনিদের পরিচয় নিশ্চিত হলেও, দ্রুত জায়গা বদলানোর ফলে তাদের গ্রেফতার করা যাচ্ছেনা বলে জানান, সদরঘাট থানার ওসি। রাজনীতির চেয়ে ব্যবসায়িক দ্বন্দ্ব আর এলাকার আধিপত্য নিয়ে বিরোধকেই হত্যাকাণ্ডের মূল কারণ হিসেবে দেখা হচ্ছে। আর এটাকে রাজনৈতিক রূপ দিতেই আওয়ামী লীগের মিছিলকে পরিকল্পিতভাবে ব্যবহার করা হয়েছে বলে জানায়, পুলিশ।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন