সামান্য ত্রুটির কারণে বছরের পর বছর অচল থাকছে হাসপাতালের কোটি কোটি টাকার যন্ত্রপাতি

0

সামান্য ত্রুটির কারণে বছরের পর বছর অচল থাকছে বরিশালের বিভিন্ন হাসপাতালের কোটি কোটি টাকার যন্ত্রপাতি। এসব যন্ত্র সারাতে প্রকৌশলী না থাকায় ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে দরিদ্র রোগীদের। যন্ত্রপাতি মেরামতে ১২ বছর আগে বরিশালসহ দেশের ৯টি সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ইলেক্ট্রো মেডিক্যাল বিষয় অন্তর্ভূক্ত করা হলেও পদ তৈরি না হওয়ায় বন্ধ রয়েছে নিয়োগ প্রক্রিয়া। তাই দ্রুত নিয়োগের দাবি জানিয়েছেন পাশ করা শিক্ষার্থীরা।

২০০৫-০৬ শিক্ষাবর্ষে বরিশাল সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ভর্তি প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ইলেক্ট্রো মেডিক্যাল বিষয়ের প্রথম ব্যাচে ৬০ শিক্ষার্থী ভর্তি হয়। ক্লাস চলাকালীন শেরেবাংলা মেডিকেলের ভারী যন্ত্রপাতির উপর এবং ক্লাসেও রোগীদের পরীক্ষা-নিরীক্ষায় ব্যবহৃত বিভিন্ন যন্ত্রপাতি ত্রুটি মুক্ত করতে শিক্ষার্থীদের দেয়া হয় প্রশিক্ষণ। চার বছর মেয়াদী কোর্স শেষ হয় ২০১০ সালে। এরপর এক এক করে আরো ৮টি ব্যাচের শিক্ষার্থীরা পাস করে বের হলেও সরকারি কোন চাকরি পায়নি তারা।

প্রতি বছর শতশত দক্ষ ইঞ্জিনিয়ার বের হলেও নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি না থাকা এবং উচ্চতর ডিগ্রির সুযোগ সৃষ্টি না হওয়ায় হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়েছে শিক্ষার্থীরা। আর শিক্ষকদের দাবি হাসপাতালের অচল যন্ত্রপাতি সচলে পারদর্শী ‍এই বিভাগ থেকে পাশকরা প্রকৌশলীরা।

উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের হাসপাতাল গুলোতে নিয়োগ দিয়ে কর্মসংস্থানের পাশাপাশি হাসপাতালের যন্ত্র-পাতি সমাধানে সরকার দ্রুত পদক্ষেপ নেবে এমনটাই আশা অধ্যক্ষের।

ইলেক্ট্রো মেডিক্যাল বিষয়ে দেশের ৯টি সরকারি পলিটেকনিক ইনিস্টিটিউট থেকে প্রায় ৫ হাজার শিক্ষার্থী পাশ করেছে। এছাড়া আরো ২ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী এই বিষয়ে পড়াশোনা করছে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন