শীতল পাটি বাংলাদেশের এক ব্যতিক্রমি শিল্প

0

শীতল পাটি বাংলাদেশের এক ব্যতিক্রমি শিল্প। এ পাটির সৌন্দর্য যেমন নয়নাভিরাম তেমনি শরীরে দেয় শান্তির পরশ। এবার সিলেটের সেই শীতল পাটি নিয়েই, জাতীয় জাদুঘরের নলিনীকান্ত ভট্টশালী গ্যালারিতে শুরু হলো এক বিশেষ প্রদর্শনী।

নদীবিধৌত সিলেটে, সুরমা নদীর পাশাপাশি খাল-বিলের পাড়ে জন্ম নেয় মুর্তা গাছ। এই গাছ দিয়েই তৈরি হয় শীতল পাটি। শীতল পাটি নামের মাঝেই রয়েছে এর গুণ। এই পাটির সৃজনকৌশলের গুণে গরমে অনুভূত হয় শীতল পরশ।

শীতলতার পাশাপাশি নানা নকশা, রং ও বুনন কৌশল মুগ্ধ করে সকলকে। ঐহিত্যবাহী এই কুটির শিল্পকে বিশ্বদরবারে তুলে ধরতে নানামুখী উদ্যোগের কথা জানান সংস্কৃতিমন্ত্রী। এক একটি শীতল পাটি বুননে কখনও কেটে যায় ৪ থেকে ৬ মাসও । শিল্পীর হাতের ছোঁয়ায় পাটিতে ফুটে উঠে প্রকৃতি, পশুপাখি ও প্রিয়জনের অবয়ব।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন