শীতকালীন সবজির দাম খানিকটা বাড়লেও অন্য শাক-সবজির দাম ক্রেতাদের নাগালেই রয়েছে

0

মৌসুম শেষ হওয়ায়- রাজধানীতে শীতকালীন সবজির দাম খানিকটা বাড়লেও অন্য শাক-সবজির দাম ক্রেতাদের নাগালেই রয়েছে। তবে, ব্রয়লার মুরগি আগের দামে বিক্রি হলেও বেড়েছে কক মুরগির দাম। এদিকে, কয়েক দফায় বেড়ে যাওয়া চালের দাম কমার কোনো লক্ষণই নেই। আর সীমান্ত ও মহাসড়কে চাঁদাবাজি বন্ধ হলে গরু ও খাসির মাংস কেজি প্রতি ২’শো টাকা কমিয়ে আনা সম্ভব বলে দাবি, মাংস ব্যবসায়ীদের। আর পণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে আবারো কঠোর নজরদারির দাবি ক্রেতাদের।

রাজধানীর বাজারে এভাবেই সাজানো থাকে বাহারী সব সবজি। শীত ফুরিয়ে যাওয়ায় আসছে গ্রীষ্মকালীন সবজিও। টমেটো, সিম, কপিসহ বিভিন্ন শীতকালীন সবজির সরবরাহ কমতে থাকায় দামও বেড়েছে। তাই গেলো সপ্তাহের চে এসব সবজি কেজিতে বেড়েছে ৫ থেকে ১০টাকা। তবে অন্য সবজির দাম- হাতের নাগালেই।

বরাবরের মতো কিছুটা ওঠানামার মধ্যেই রয়েছে মাছের দাম। ক্রেতাদের অভিযোগ, সিটি কর্পোরেশনের এই মার্কেটটিতে নেই নিয়মিত তদারকি। লোক দেখানো কিছু পণ্যের মূল্য তালিকা ঝোলানো হলেও তা হালনাগাদ করা হয়না। ফলে ইচ্ছেমতো দাম হাকেন বিক্রেতারা।

এদিকে, সীমান্ত ছাড়াও মহাসড়কে চাঁদাবাজির কারণে গবাদি পশু আমদানিতে দিগুণের বেশি খরচ হচ্ছে ব্যবসায়ীদের। তাদের দাবি এ কারণেই চড়া দামে বিক্রি করতে হচ্ছে মাংস। এছাড়া, ডিম ও ব্রয়লার মুরগির দাম বিক্রি হচ্ছে আগের দামেই। তবে চালের বাজারে এখনো ফেরেনি স্থিতিশীলতা। ভোক্তা অধিকার রক্ষায় সংশ্লিষ্টদের কার্যকর ভূমিকা না থাকায় ক্ষোভ জানিয়েছেন নগরবাসী।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন