শিশুদের বৈশ্বিক নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার অঙ্গিকার

0

শিশুদের যোগ্য বৈশ্বিক নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে সরকার অঙ্গিকারবদ্ধ বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেশের প্রতিটি মানুষের ঘরে উন্নয়নের সুফল পৌঁছে দিয়ে এবং বাংলাদেশকে উন্নত করে গড়ে তুলতে ভবিষ্যতেও কাজ করে যাবার ঘোষণা দেন তিনি। জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত শিশু সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

গোপালগঞ্জের এই টুঙ্গীপাড়ার মাটিতেই জন্ম নিয়েছিলেন স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা ও সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। আর এই মাটিতেই চিরনিদ্রায় শায়িত তিনি। তাঁর জন্ম দিবসে সমাধিতে শ্রদ্ধা জানান রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এসময়ের তিন বাহিনীর একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার দেয়। পরে সমাধি প্রাঙ্গনেই বিশেষ দোয়া ও মোনাজাতে অংশ নেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী।

এরপর দলীয় সভাপতি হিসেবে আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী। সাথে ছিলেন বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানা।

পরে জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত শিশু সমাবেশে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী। উন্মোচন করেন বঙ্গবন্ধুকে লেখা শ্রেষ্ঠ চিঠি গ্রন্থের মোড়ক ও গোপালগঞ্জ জেলা ব্রান্ডিং এর লোগো উন্মোচন করেন তিনি। বলেন, বঙ্গবন্ধু তাঁর সারা জীবন এই বাংলার মানুষের জন্য উৎসর্গ করেছেন। বাবার আদর্শে এই দেশের জন্য নিজের জীবনও ঊৎসর্গের ঘোষনা দেন বঙ্গবন্ধুকন্যা।

শেখ হাসিনা আরো বলেন, পঁচাত্তরের পর বিশেষ একটি মহল প্রকৃত ইতিহাস বিকৃতর চেষ্টা করলেও সত্যকে দমিয়ে রাখতে পারেনি।

আজকের শিশু যেন ভবিষ্যতে একটি উন্নত জীবন পায় সেই লক্ষ্য নিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরনে কাজ করে যাওয়ার ঘোষণাও দেন সরকার প্রধান।

পরে চিত্র ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগীতায় বিজয়ীদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন