শরীরে একফোঁটা রক্ত থাকতে কারওয়ান বাজার স্থানান্তর করতে দেয়া হবে না

0

শরীরে একফোঁটা রক্ত থাকতে কারওয়ান বাজার স্থানান্তর করতে দেয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, ২৬ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইসলামিয়া শান্তি সমিতির সাধারণ সম্পাদক লোকমান হোসেন। সরকারের নেয়া প্রকল্পকে অপরিকল্পিত উল্লেখ করে তিনি জানান, ব্যবসায়ীদের স্বার্থেই কারওয়ান বাজার সরাতে দেয়া হবে না। অন্যদিকে, সিটি কর্পোরেশন কর্মকর্তারা বলছেন, যেকোন মুল্যে বাজার স্থানান্তর করা হবে।

সাড়ে তিনশ’কোটি টাকা ব্যয়ে রাজধানীর মহাখালী, যাত্রাবাড়ী ও আমিনবাজারে তিনটি পাইকারী কাঁচাবাজারের নির্মাণ কাজ প্রায় শেষ। কিন্তু তিনবার দোকান বরাদ্দের দরপত্র দিয়েও ব্যর্থ হয় সিটি কর্পোরেশন। কারণ কারওয়ান বাজারের ব্যবসায়ীরা কোনভাবেই সরতে রাজি নন। তাদের দাবি, বাজার স্থানান্তরের পেছনে বড় ধরণের ষড়যন্ত্র রয়েছে।

কারওয়ান বাজারে শ্রমিক ও ব্যবসায়ী মিলে প্রায় এক লাখ লোকের কর্মসংস্থান রয়েছে দাবি করে লোকমান জানান, কোনভাবেই বাজার সরাতে দেয়া হবে না।

তবে যেকোন মুল্যে কারওয়ান বাজার সরানোর কথা জানিয়েছেন, উত্তর সিটির প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা। তিনি বলেন, প্রয়োজনে উচ্চ পর্যায়ের কমিটি করে বাজার স্থানান্তর করা হবে।

নবনির্মিত তিনটি মার্কেটের পরিকল্পনা নিয়েও নানা বির্তক ব্যবসায়ীদের। প্রকল্প পরিচালক অবশ্য বলছেন, সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা আর সব সুযোগ সুবিধাই থাকছে নতুন মার্কেটে।

২০০৬ সালের ৪ অক্টোবর পাশ হওয়া প্রকল্পের সাবেক দুই অভিযুক্ত পরিচালক স্ব-পরিবারে এখন বিদেশ রয়েছেন।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন