রোহিঙ্গাদের সম্মানের সঙ্গে নিজ দেশে ফিরতে পারে, সে লক্ষ্যে সুইজারল্যান্ড সরকার কাজ করবে

0

রোহিঙ্গা শরণার্থীরা যাতে স্বেচ্ছায়, নিরাপদে ও সম্মানের সঙ্গে নিজ দেশে ফিরতে পারে, সে লক্ষ্যে সুইজারল্যান্ড সরকার কাজ করবে। এমন অঙ্গীকার করেছেন, সুইজারল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট আঁলা বেরসে। তিনি বলেন, শরণার্থী সংকটের স্থায়ী সমাধানের জন্য, বাংলাদেশ ও মিয়ানমার সরকারের মধ্যে চলমান অগ্রগতিকে সুইজারল্যান্ড স্বাগত জানায়। দুপুরে কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্প পরিদর্শনের পর, তিনি এসব জানান।

মঙ্গলবার বেলা ১টার দিকে কক্সবাজারের উখিয়ায় কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে আসেন প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে আসা কোন সুইস প্রেসিডেন্ট। তিনি ঘুরে ঘুরে রোহিঙ্গাদের থাকার যায়গা পরিদর্শন করেন এবং এতিম শিশুদের সাথে কিছুটা আনন্দময় সময় কাটান। পরে বিভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্র ঘুরে দেখে অন্তত ১০ জন রোহিঙ্গার সাথে কথা বলেন। তাদের হাতে ত্রানও তুলে দেন সুইস প্রেসিডেন্ট।

পরে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আয়োজিত সংক্ষিপ্ত সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট আঁলা বেরসে সুইস মানবিক সাহায্য সংস্থার মাধ্যমে তার সরকারের ২০১৭ সালের ৮ দশমিক ৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তা এবং ২০১৮ সালে ১২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অতিরিক্ত সহায়তার কথা উল্লেখ করে তিনি আশা করেন, মিয়ানমারে প্রত্যাবর্তন-হবে স্বেচ্ছায়, নিরাপদে ও সম্মানজনকভাবে । এসময় স্থানীয়দের পাশাপাশি রোহিঙ্গাদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও বাংলাদেশ সরকারের প্রশংসা করেন সুইস প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, কফি আনানের প্রতিবেদন অনুযায়ী যেন প্রত্যাবাসন সম্পন্ন হয় সেদিকে তারা খেয়াল রাখবেন।

সুইজারল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট অ্যাঁলা বারসের ক্যাম্প পরিদর্শনের সময় পররাষ্ট্র মন্ত্রী এ.এইচ. মাহমুদ আলী, সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরসহ দুই দেশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন