রোহিঙ্গাদের কারণে পরিবেশ ও অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে

0

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলায় ব্যর্থ হলে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা- এসডিজি অর্জন হুমকিতে পড়বে। রোহিঙ্গাদের কারণে বাংলাদেশের পরিবেশ ও অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে জানিয়ে জলবায়ুর ঝুঁকি মোকাবেলায় কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান শেখ হাসিনা। স্পেনে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘের জলবায়ু বিষয়ক শীর্ষ সম্মেলনে এসব বলেন প্রধানমন্ত্রী।

জাতিসংঘের জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত শীর্ষ সম্মেলন কপ- টোয়েন্টি ফাইভের উদ্বোধনী অধিবেশনে যোগ দেন শেখ হাসিনা। স্থানীয় সময় সকালে সম্মেলনস্থলে পৌঁছালে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান স্পেনের প্রেসিডেন্ট পেড্রো সেনচেজ।

উদ্বোধনী অধিবেশনে জাতিসংঘ মহাসচিব, স্পেনের প্রেসিডেন্ট ও কপ টোয়েন্টি ফাইভের প্রেসিডেন্ট বক্তব্য রাখেন। পরে রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের গোলটেবিল আলোচনায় অংশ নিয়ে জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলায় বাংলাদেশের নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ বিশ্বনেতাদের সামনে তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে ঝুঁকির মুখে পড়েছে বাংলাদেশের অর্থনীতি। দ্রুত এর সমাধান করা না গেলে টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্য অর্জন ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

রোহিঙ্গাদের কারনে কক্সবাজারের পরিবেশ ক্ষতিগ্রস্তহচ্ছে জানিয়ে, বাংলাদেশের সংসদে নেয়া প্ল্যানেটারি ইমার্জেন্সি প্রস্তাবনা সমর্থনে বিশ্বনেতাদের প্রতি আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

জলবায়ুর ঝুঁকি মোকাবেলায় গৃহীত প্রস্তাবনাগুলো বাস্তবায়নের তাগিদ দেয়ার পাশাপাশি নতুন কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

এর আগে ক্লাইমেট ভলনারেবল ফোরাম এবং জাতিসংঘের গ্লোবাল কমিশন অন এডাপ্টেশনের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত বিশেষ অধিবেশনে যোগ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম বাংলাদেশ। তবে সরকার নিজস্ব অর্থায়নেই ঝুঁকি মোকাবেলায় কাজ করছে।

পশ্চিমা দেশগুলোর কারণে পরিবেশগত ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশের পাশে দাঁড়াতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন