রাশিয়া বিশ্বকাপ ২০১৮ শুরু হতে বাকি মাত্র আট দিন

0

রাশিয়া বিশ্বকাপ ২০১৮ শুরু হতে বাকি মাত্র আট দিন। গ্রেটেস্ট শো অন আর্থের মহাযজ্ঞে ৩২ দল লড়বে আটটি গ্রুপে ভাগ হয়ে। বেলজিয়াম, ইংল্যান্ড, তিউনিশয়া ও পানামাকে নিয়ে গড়া গ্রুপ ‘জি’।

রাশিয়া বিশ্বকাপে জি গ্রুপে অন্যতম শক্তিশালী দল– ১৯৫০ সাল থেকে অংশগ্রহন করা ইংল্যান্ড। নিজেদের ১৬তম বিশ্বকাপে তারুণ্য নির্ভর দল নিয়ে প্রস্তুত থ্রি-লায়নস’রা। ১৯৬৬ সালে একবারাই বিশ্বকাপ জয় তাদের সেরা সাফল্য। ৫২ বছর পর বিশ্ব জয়ের ট্রফি জিততে মরিয়া– ফিফা রেংকিংয়ে ১৩তম স্থানে থাকা গ্যারেথ সাউথগেটের দল।

ডেলে আলির মত ভার্সেটাইল এটাকিং মিডফিল্ডার এবং রাহিম স্টারলিং ও হ্যারি কেইনের মত জাত গোলশিকারি আছে দলে। তাছাড়া ইংলিশদের রিজার্ভ বেঞ্চেও মারকাস রেশফোর্ড, জেসে লিনগার্ড, রুবেন লফটাস-চিক, ট্রেন্ট আলেকজান্ডার-আরনল্ডের মত যথেষ্ট ফায়ার পাওয়ারও রয়েছে।

ইংল্যান্ডের মতই বাছাইপর্বে নিজ গ্রুপে অপরাজিত থেকে বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ নিশ্চিত করেছে বেলজিয়াম। ফিফার আমন্ত্রনে ১৯৩০ সালে সর্বোপ্রথম বিশ্বকাপে অংশ নিয়ে এ-পর্যন্ত ১৩বার অংশ নিলেও, রেড-ডেভিল’দের সেরা সাফল্য—১৯৮৬’র বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল খেলা।

কেভিন ডি ব্রুইন, এডেন হ্যাজার্ডের মত স্কিলসম্পন্ন প্লেমেকার এবং রোমেলু লুকাকুর মত বিশ্বমানের স্ট্রাইকার আছে লাল-জার্সীধারিদের। একঝাঁক বিশ্বমানের ফুটবলারে সমৃদ্ধ বেলজিয়ামকে বলা হচ্ছে তাদের ইতিহাসের সোনালি প্রজন্ম। তাই আগের সাফল্য ছাড়িয়ে যেতে প্রস্তুত ফিফা রেংকিংয়ে ৫ম স্থানে থাকা রবার্তো মার্টিনেজের দল।

আফ্রিকান অঞ্চল থেকে নিজ গ্রুপে কঙ্গোকে ১ পয়েন্টে টপকে পঞ্চমবারের মত বিশ্বকাপে জায়গা করে নিয়েছে তিউনিসিয়া। এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপে কখনোই গ্রুপপর্ব পেরোতে পারেনি ফিফা রেঙ্কিং এ ১৪তম স্থানে থাকা নাবিল মালাউলের দল।

১২ বছর পর বিশ্বকাপে সুযোগ পাওয়া উত্তর আফ্রিকার দলটিকে প্রেরণা যোগাচ্ছে বাছাইপর্বের অপ্রতিরোধ্য ফর্ম। ওয়াহবি খাজরি, ফারজানি সাসি, আলী মালাউল সহ রাইজিং স্টার নাঈম স্লিতি’দের প্রথম লক্ষ্য গ্রুপ পর্বের বাধা পেরুনো। কিন্তু শক্তিশালী প্রতিপক্ষ থাকায় কাজটা মোটেও সহজ হবে না দ্যা কার্থেজ ঈগলস’দের।

কনক্যাকাফ অঞ্চল থেকে যুক্তরাষ্ট্র এবং হন্ডুরাসকে টপকে বিশ্বকাপে জায়গা করে নিয়েছে পানামা। বিশ্বকাপে প্রথমবারের মত খেলতে আসা মাত্র ৪০ লাখ জনগোষ্ঠীর দেশ পানামার ওপর প্রত্যাশার চাপ নেই বললেই চলে। বিশ্বকাপে যাই করতে পারবে সেটাই অর্জন হয়ে থাকবে লা মারিয়া রোজা’দের। সে লক্ষ্যেই দলকে উপভোগের মন্ত্রে উজ্জীবিত করছেন কোচ হার্নান দারিও গোমেজ।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন