রাজশাহীতে বাছাইয়ে বাদ পড়া বিএনপির প্রার্থীরা আপিলের মাধ্যমে ফিরে আসার অপেক্ষায়

0

রাজশাহী বিভাগে বিভিন্ন উপজেলা চেয়ারম্যান ও পৌর মেয়রদের ইমেজ কাজে লাগিয়েই ভোটে নামতে চেয়েছিল বিএনপি। কিন্তু রিটার্নিং কর্মকর্তার চৌকাঠ পেরুনোর আগেই ছিটকে পড়েছেন তারা। প্রাথমিক বাছাইয়ে বাদ পড়েছেন বিএনপির মনোননীত হেভিওয়েট প্রার্থীরাও। তবে, আপিল নিষ্পত্তির মাধ্যমে নির্বাচনে ফিরে আসার আশা করছেন তারা।

আওয়ামী লীগ সরকারের সময়েই দলীয় টিকিটে রাজশাহী বিভাগের বিভিন্ন উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপি নেতারা। এবার জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তাদের অনেককেই মনোনয়ন দিয়েছিল দলটি। কিন্তু এই তালিকায় থাকা, বগুড়ার শাহজাহানপুর, গাবতলী, পাবনার চাটমোহর, রাজশাহীর চারঘাট উপজেলা চেয়ারম্যান ও নওগাঁ পৌরসভার মেয়র রিটার্নিং কর্মকর্তার যাচাইয়ে বাদ পড়েছেন। বেশির ভাগেরই বিরুদ্ধে অভিযোগ, পদত্যাগ করলেও মন্ত্রণালয়ে তা গৃহীত হওয়ার কোনো প্রমাণ তারা দাখিল করেননি।

এই বাইরেও দলের হেভিওয়েট প্রার্থী হিসেবে পরিচিতরাও ছিটকে পড়েছেন বাছাই প্রক্রিয়াতেই। বগুড়া-৬ ও ৭ আসনে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ছাড়াও বাদপড়াদের মধ্যে আছেন- দলের ভাইস চেয়ারম্যান ও রাজশাহী-১ আসনের প্রার্থী ব্যারিস্টার আমিনুল হক, সিরাজগঞ্জ-২ আসনের প্রার্থী আরেক ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। মনোনয়ন হারিয়েছেন দু’বারের সাবেক সংসদ সদস্য নাদিম মোস্তফাও।

বাদপড়াদের মধ্যে বিএনপির প্রার্থীদের নামের তালিকা লম্বা হওয়ায় নির্বাচন কমিশনকেই দুষছেন দলটির নেতারা। তবে তাদের দাবি, এবার মুখ দেখে নয়, ভোট হবে প্রতীকেই।

তাদের আশা, আপিলের শুনানির মাধ্যমে বাদপড়ারা আবারো ফিরবেন প্রার্থী হিসেবে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন