মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন হস্তান্তরের আগেই বিভিন্ন স্থানে ফাটল

0

ঝালকাঠির রাজাপুরে নির্মিত মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন হস্তান্তরের আগেই বিভিন্ন স্থানে ফাটল দেখা দিয়েছে। পলেস্তরা খসে পড়ায় মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে দেখা দিয়েছে ক্ষোভ। ভবনটি ত্রুটিমুক্ত করে হস্তান্তরের দাবি জানিয়েছেন তারা।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর ৩ কোটি ১৮ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে তিনতলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের নির্মাণ কাজ শুরু করে। মুক্তিযোদ্ধাদের অভিযোগ, নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করায় কাজ শেষ হওয়ার পরপরই ভবনটির বিভিন্ন স্থানে ফাটল দেখা দেয়। দেয়ালের পলেস্তরা খসে পড়তে শুরু করে। ২০১৬ সালের ১৪ ডিসেম্বর সংসদ সদস্য বজলুল হক হারুন ভবনটির নির্মান কাজের উদ্বোধন করেন। মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের উদ্বোধনের দুই বছর পার হলেও হস্তান্তর করা হয়নি।

৭ এপ্রিল মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সটি পরিদর্শন করেন ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হক। এ সময় স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার শাহ-আলম নান্নু সহ মুক্তিযোদ্ধারা ভবন নির্মানের বিভিন্ন অনিয়মের বিষয় জেলা প্রশাসকের কাছে অভিযোগ করেন। জেলা প্রশাসক মুক্তিযোদ্ধ সংসদের কাছে হস্তান্তর না করে ১০ কর্ম দিবসের মধ্যে ঠিকাদার রাজাপুর সদর ইউপি চেয়ারম্যান মো. আনোয়ার হোসেন মজিবরকে ভবনটি সম্পূর্ণ ত্রুটিমুক্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন। আর মুক্তিযোদ্ধারাও অপেক্ষায় রয়েছেন একটি ত্রুটিমুক্ত সুদৃশ্য কমপ্লেক্স পাওয়ার।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন