মাদক, সন্ত্রাসের মতো অশুভ দিক নিয়ে সচেতনতামূলক চলচ্চিত্র তৈরির আহবান

0

মাদক, সন্ত্রাসের মতো সমাজের অশুভ দিক নিয়ে সচেতনতামূলক চলচ্চিত্র তৈরির আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মেধা কাজে লাগিয়ে সময়োপযোগী ও জীবন ঘনিষ্ঠ চলচ্চিত্র নির্মাণে সংশ্লিষ্টদের তাগিদ দেন তিনি। বিকেলে ২০১৭ ও ১৮ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। চলচ্চিত্র খাতে সুদিন ফেরাতে মফস্বলের হলগুলোর আধুনিকায়নের পরামর্শ দেন শেখ হাসিনা।

দেশীয় চলচ্চিত্রের সর্বোচ্চ ও একমাত্র রাষ্ট্রীয় পুরস্কার হল জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। গেল নভেম্বরে, ২০১৭ ও ১৮ সালের পুরস্কার প্রাপ্তের নাম ঘোষনা করা হয়। বিকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দুই বছরে ২৮ ক্যাটাগরিতে মোট ৫৯ জন শিল্পী ও কলাকুশলী জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেল। ২০১৭ সালের শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র ঢাকা অ্যাটাক। শ্রেষ্ঠ অভিনেতা আরেফিন শুভ ও শাকিব খান। হালদা’য় শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরষ্কার তিশার ঝুলিতে। আর আজীবন সম্মাননা পেলেন এটিএম শামসুজ্জামান ও সুজাতা।

২০১৮ সালের শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পুত্র। এই চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা ফেরদৌস আর জান্নাত ছবির জন্য এই সম্মান পান সাইমন সাদিক। দেবী চলচ্চিত্রের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী জয়া আহসান। আজীবন সম্মাননায় ভূষিত হন আলমগীর ও প্রবীর মিত্র।

বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী চলচ্চিত্রে মানুষের আগ্রহ ফিরিয়ে আনতে, মফস্বল পর্যায়ে ডিজিটাল ব্যবস্থায় সিনেমা হল নির্মানের আহবান জানান। সমাজের অবক্ষয় রোধে মাদক ও সন্ত্রাস বিরোধী জীবন ঘনিষ্ট চলচ্চিত্র নির্মানের পরামর্শ দেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার চায় চলচ্চিত্র শিল্পের উন্নয়ন হোক। চলচ্চিত্রে বিদেশ নির্ভরতা কমিয়ে সমস্যা চিহ্নিত করে তা সমাধানের পরামর্শ দেন তিনি। পরে বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন