মাগুরার নবগঙ্গা নদী খনন প্রকল্পের কাজ নিয়ে তদারকি কমিটির অসন্তোষ

0

প্রায় অর্ধশত কোটি টাকা ব্যয়ে মাগুরা শহর সংলগ্ন নবগঙ্গা নদী খনন প্রকল্পের কাজে অসন্তোষ প্রকাশ করেছে জেলা প্রশাসনের পক্ষে খনন কাজ তদারকির দায়িত্বে থাকা কমিটি। গেলো ৬ মাসে যেখানে কাজের ৫০ ভাগ শেষ করা যায়নি, সেখানে প্রকল্পের জন্য নির্ধারিত ২০ জুনের মধ্যে কীভাবে বাকি ৫০ ভাগ খনন কাজ শেষ হবে তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তারা।

গত ডিসেম্বর মাস থেকে ৪৩ কোটি টাকা ব্যয়ে মাগুরা শহর সংলগ্ন পারনান্দুয়ালী থেকে আলোকদিয়া পর্যন্ত ১১ কিলোমিটার এলাকায় নবগঙ্গা নদী খনন কাজ শুরু হয়। প্রথম থেকেই খনন কাজের মান নিয়ে অসন্তোষ ছিল স্থানীয়দের মধ্যে। নবগঙ্গা নদী খননে ঠিকাদারের গাফিলতিতে দীর্ঘ সময় লেগে গেছে। নদীর ভেতরের অংশে স্কেবেটর দিয়ে মাটি কাটার কথা থাকলেও তারা অধিকাংশ সময়ই মাটি না কেটে সময় ক্ষেপন করেছে। প্রকল্পের শেষ দিকে এসে নদীতে পানি বেড়ে যাওয়ার পর তারাহুড়া করে ঠিকাদার দেশীয় অবৈধ ড্রেজার লাগিয়ে অবৈজ্ঞানিক উপায়ে মাটি কাটছেন।

নবগঙ্গা নদীর উপরে শেখ কামাল সেতুর তলদেশ থেকে মাটি কাটায় সেতুটি ঝুঁকিতে পড়ছে বলে অভিযোগ তুলেছে স্থানীয়দের। তবে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে দ্রুত কাজ শেষ করার আশ্বাস দেয়া হয়েছে।

এদিকে, চুক্তি মোতাবেক ২০ জুনের মধ্যে প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও কাজের অগ্রগতি নিয়ে পরিদর্শন দলের প্রধানও অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। তবে নদী খননের ফলে ব্রীজের কোন ক্ষতি হবে না বলে জানালেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের এই প্রকৌশলী।

সঠিকভাবে নদী খনন কাজের মাধ্যমে নবগঙ্গা নদীর নব্য ফিরিয়ে আনা হবে এমনই প্রত্যাশা স্থানীয়দের।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন