ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্যাঙের ছাতার মতো গজিয়ে উঠেছে বেসরকারি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার

0

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিভিন্ন স্থানে ব্যাঙের ছাতার মতো গজিয়ে উঠেছে বেসরকারি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার। ভুল চিকিৎসা ও মানহীন পরীক্ষার কারণে প্রাণহানিসহ নানা দুর্ভোগ পোহাতে হয় এসব প্রতিষ্ঠানে সেবা নিতে আসা রোগী ও স্বজনদের। অনুমোদনহীন এসব প্রতিষ্ঠানকে নিয়ে বেকায়দায় রয়েছে খোদ বেসরকারি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার মালিক সমিতির নেতারা। এদিকে, এসব প্রতিষ্ঠানের নিয়ন্ত্রক জেলার সিভিল সার্জন কার্যালয় বলছেন নিয়মিত নজরদারির কথা।

এই ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওর খণ্ডচিত্র। ভুল চিকিৎসায় স্বজন হারানোর অভিযোগ এই নারীর। পাশাপাশি মরদেহ নিয়ে যেতে নানাভাবে হুমকি-ধামকিও দেয়ার অভিযোগ করেন তিনি। এভাবে বিভিন্ন সময় গণমাধ্যমের শিরোনাম হয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বেসরকারি পর্যায়ের চিকিৎসা ব্যবস্থার ত্রুটি-বিচ্যুতি। জেলায় ১৭৩টি ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও হাসপাতাল রয়েছে। যার অধিকাংশই অনুমোদনহীন। এছাড়া অদক্ষ ও ভুয়া চিকিৎসক, মানহীন পরীক্ষাগার ও অদক্ষ টেকনিশিয়ান দিয়ে কাজ চালানো হচ্ছে।

এসব নামসর্বস্ব ও ভুয়া প্রতিষ্ঠান নিয়ে বেকায়দায় রয়েছে বেসরকারি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার মালিক সমিতির নেতারাও । এসব প্রতিষ্ঠানের ব্যাপারে একাধিকবার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে বললেন এই নেতা।

এদিকে, জেলা পর্যায়ে এসব হাসপাতাল এবং ডায়াগনস্টিক সেন্টার নজরদারি করে সিভিল সার্জন অফিস। বরাবরের মতো নজরদারি চালিয়ে যাওয়ার কথাই জানালেন সিভিল সার্জন।

মানুষের অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে স্বাস্থ্য সেবার নামে ব্যবসা বন্ধে পদক্ষেপ দেখতে চান স্থানীয়রা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন