বিশ্বকাপের এই মহাজজ্ঞে রাশিয়া তাদের ১১টি শহরে ১২টি ভেন্যু প্রস্তুত

0

দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থের ২১তম আসরে গ্রুপ পর্ব থেকে শুরু করে ফাইনাল পর্যন্ত মোট ম্যাচ হবে ৬৪টি। বিশ্বকাপের এই মহাজজ্ঞে আয়োজক দেশ রাশিয়া তাদের ১১টি শহরে ১২টি ভেন্যু প্রস্তুত করেছে। ১২টি ভেন্যুর ধারাবাহিক পরিচিতির শেষ পর্বে আজ থাকছে সোচি শহরের ফিশ্ট স্টেডিয়াম ও নিঝনি নোভগোরোদ শহরের নোভগোরোদ স্টেডিয়ামের কথা।

আকারে রাশিয়া বিশ্বের বৃহত্তম দেশ। বাল্টিক সাগরের উপকূলীয় শহর কালিনিনিগ্রাদের স্টেডিয়াম থেকে দূরের উরাল পর্বতের লাগোয়া ইয়েকাতেরিনাবার্গ স্টেডিয়ামের দূরত্ব ৩,০০০ কিলোমিটার। সেন্ট পিটাসবার্গ থেকে ফিস্টের অলিম্পিক স্টেডিয়ামের দূরত্ব ২,৪০০ কিলোমিটার।কৃষ্ণ সাগরের তীরে ১৪০ কি.মি. আয়তনের সোচি শহরটি ইউরোপের দীর্ঘতম শহর। শহরের অন্যদিকেই রয়েছে ককেসাস পর্বতমালা। আর এই শহরেই রাশিয়া বিশ্বকাপের অন্যতম ভেন্যু ফিস্ট স্টেডিয়ামের অবস্থান। স্থানীয় ভাষায় ফিশ্ট শব্দের অর্থ ‘সাদা মাথা।

২০১৪ সালের শীতকালীন অলিম্পিক উপলক্ষে নির্মাণ করা হয়েছিল স্টেডিয়ামটি। ৪৭,৭০০ দর্শক ধারন ক্ষমতার এই স্টেডিয়ামটি মস্কো থেকে দূরত্ব প্রায় ১ হাজার চল্লিশ মাইল। গ্রপ পর্বে ১৫ জুন পর্তুগাল-স্পেন, ১৮ জুন বেলজিয়াম-পানামা, ২৩ জুন জার্মানি-সুইডেন, ২৬ জুন অস্ট্রেলিয়া-পেরুর ম্যাচ সহ ৩০ জুন নক-আউট পর্বের ১টি এবং ৭ জুলাই ৩য় কোয়ার্টার ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ফিস্ট স্টেডিয়ামে।

রাশিয়া বিশ্বকাপের অন্যতম আরেকটি নতুন ভেন্যু নোভগোরোদ স্টেডিয়াম। নিজেগোরোদ ওব্লাস্ট অঞ্চলের প্রশাসনিক কেন্দ্র এই নিঝনি নোভগোরোদ শহরটি মস্কোর পূর্ব দিকে ভল্গা এবং ওকা নদীর মোহনায় অবস্থিত। দুই নদীর মিলনস্থলের পাশেই তৈরি করা হয়েছে স্টেডিয়ামটি। মস্কো থেকে ভেন্যুটির দূরত্ব ২৬৫ মাইল। ভল্গা অঞ্চলের ভূপ্রকৃতির সাথে মিল রেখে নিঝনি নোভগোরোদ স্টেডিয়ামের নকশা করা হয়েছে। গোলাকার নকশায় ঘূর্ণায়মান বাতাস এবং পানির প্রতিচ্ছবি লক্ষ্য করা যায়।

৪৫,৩০০ দর্শক ধারন ক্ষমতার এই স্টেডিয়ামে গ্রুপ পর্বে ১৮ জুন সুইডেন-দক্ষিণ কোরিয়া, ২১ জুন আর্জেন্টিনা-ক্রোয়েশিয়া, ২৪ জুন ইংল্যান্ড-পানামা, ২৭ জুন সুইজারল্যান্ড-কোস্টারিকা ম্যাচ সহ ১ জুলাই নক আউট পর্বের ১টি এবং ৬ জুলাই প্রথম কোয়ার্টার ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে নোভগোরোদ স্টেডিয়ামে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন