বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় এলে দুর্নীতি ও সন্ত্রাস মদদ পায়

0

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় এলে দুর্নীতি ও সন্ত্রাস মদদ পায়; আর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় গেলে– দেশ ও জনগণের কল্যাণ হয়। বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে বিকেলে রাজধানীতে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। জনগণকে উন্নত ও স্বাবলম্বী করাই তার সরকারের লক্ষ্য বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

দীর্ঘ ন’মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পর, বাংলাদেশ পেয়েছে মহান স্বাধীনতা। কিন্তু সেই বিজয়ের পূর্ণতা পায়, বাহাত্তরের ১০ জানুয়ারি। যেদিন বাংলার অবিসংবাদিত নেতা স্পর্শ করেছিলেন, সদ্য স্বাধীন দেশের মাটি। এ দিনটিকে আওয়ামী লীগ পালন করে আসছে, বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস হিসেবে। এরই অংশ হিসেবে, বুধবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি, তারই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী প্রথমেই স্মরণ করেন বঙ্গবন্ধু, জাতীয় চার নেতা ও মুক্তিযুদ্ধের লাখো শহীদকে। শোষিত-নিপীড়িত মানুষের মুক্তির জন্য, বঙ্গবন্ধুর আজীবন সংগ্রামের কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধের সকল অর্জন বঙ্গবন্ধুরই দুরদর্শীতার ফল। তার পরিকল্পনাতেই এসেছিলো বিজয়। জিয়াউর রহমানের বহুদলীয় গণতন্ত্র মানেই যুদ্ধাপরাধী ও স্বাধীনতা-বিরোধীদের পুনর্বাসন করা– এমন অভিযোগ করে তিনি বলেন, এ কারণেই বাংলাদেশ দীর্ঘদীন পিছিয়ে ছিলো।

বিএনপি-জামায়াত জোট আন্দোলনের নামে পাকিস্তানীদের মতো মানুষ হত্যা করে অভিযোগ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এদের হাতে জনগণের কল্যাণ সম্ভব নয়। আওয়ামী লীগের হাতেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে দাবি করে– সরকার প্রধান বলেন, প্রতিটি মানুষের কাছে উন্নয়নের সুফল পৌঁছে দিয়ে– বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলাই তার সরকারের মূল লক্ষ্য।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন