বাচ্চুর বিরুদ্ধে সঠিক সময়ে অভিযোগ পত্র না দেওয়ায় দুদক চেয়ারম্যানের পদত্যাগ করা উচিত

0

বেসিক ব্যাংকের ঋণ জালিয়াতির মূল হোতা তৎকালীন চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বাচ্চুর বিরুদ্ধে সঠিক সময়ে অভিযোগ পত্র না দেওয়ায় দুদক চেয়ারম্যানের পদত্যাগ করা উচিত বলে মনে করেন, আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সদস্য সচিব ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নুর তাপস। অন্যদিকে দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান জানান পদত্যাগের বিষয়টি চেয়ারম্যানের একান্ত ব্যক্তিগত। তবে সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থেই এই মামলার চার্জশীট দিতে দেরি করছে দুদক।

দেশের আর্থিক খাতের দুর্নীতিতে আলোচিত এক নাম বেসিক ব্যাংক ঋণ ক্যালেঙ্কারি। ২০১৩ সালে ব্যাংকটির সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের তদন্ত প্রতিবেদন তৈরী করে বাংলাদেশ ব্যাংক। ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে জড়িত কর্মকর্তা এবং ঋণ ক্যালেঙ্কারির ৫৬টি মামলা করে দুদক। তবে ক্রুটিপূর্ন ওইসব ঋণ প্রস্তাব পাশের নেপথ্যে বড় ভূমিকা ছিল ব্যাংকটির তৎকালীন চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বাচ্চুর।

এমন বাস্তবতায় নাগরিক দায়িত্ববোধ থেকেই বেসিক ব্যাংকের ঋণ ক্যালেঙ্কারি বিষয়ে সোচ্চার আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সদস্য সচিব।

তবে দুদকের আইনজীবী জানান, পাচার হওয়ার অর্থের গতিপথ চূড়ান্ত করতেই সময় নিচ্ছে দুদক।

সময়মত অভিযোগ পত্র জমা না দেওয়ার ব্যর্থতায় কারণে দুদক চেয়ারম্যানের পদত্যাগ করা উচিত বলেও মত দেন ব্যারিস্টার তাপস।

তদন্তে ঋণ জালিয়াতির সঙ্গে বাচ্চুর জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেলে কোন ছাড় দেওয়া হবে না বলেও জানান খুরশীদ আলম খান।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন