প্রস্তাবিত বাজেট জনগণের উপকারে আসবে না

0

প্রস্তাবিত বাজেট জনগণের কোনো উপকার আসবে না। এমন দাবি করেছেন গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। তার মতে, এটি অদূরদর্শী ও দুর্বলভাবে প্রণীত বাজেট। এতে দেশের প্রকৃত সমস্যা মোকাবেলায় কোনো চেষ্টা নেই। আর বাজেটে কথার ফুলঝুড়ির মাধ্যমে জনগণকে ধোকা দেয়া হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি নেতা ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। আরেক নেতা আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, এই বাজেট জনগণের প্রত্যাশা পুরণ করবে না। রাজধানীতে আলাদা আলোচনায় এসব কথা বলেন ঐক্যফ্রন্ট নেতারা।

২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের প্রতিক্রিয়া জানাতেই এই প্রেসক্লাবে এই সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করে গণফোরাম। এতে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন দলের সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়া। পরে বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল হোসেন বলেন, বর্তমানে দেশকে যারা লুটেপুটে খাচ্ছে ও অবৈধভাবে অর্জিত অর্থ বিদেশে পাচার করছে, তাদের সুবিধার জন্যই এবারের বাজেট করা হয়েছে। বাজেট প্রণয়নকারিরা দেশের ভবিষ্যৎ নিয়ে কোনো চিন্তা করেন না বলেও মন্তব্য তার।

এদিকে, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক আলোচনায় যোগ দিয়ে বিএনপি নেতা ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, জনগণের ওপর ঋণ ও করের বোঝা চাপাতেই দেয়া হয়েছে এই বাজেট।

এছাড়া, প্রেসক্লাবে অপর এক আলোচনায় বিএনপির আরেক নেতা আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, এই সরকার জনগণের কাছে দায়বদ্ধ নয়। তার দাবি, যারা ভোট চুরি করে, তাদের হাতে দেশের সম্পদ নিরাপদ নয়।

খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয় উল্লেখ করে বিএনপি নেতারা বলেন, তিনি মুক্তি পেলেই দেশের মানুষের সার্বিক মুক্তি মিলবে। তাই খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলারও আহ্বান জানান তারা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন