প্রযুক্তির অ্যাপ্লিকেশন থেকে নির্গত রশ্মি, শিশুদের চোখ ও মস্তিষ্কের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর

0

প্রযুক্তির অ্যাপ্লিকেশন থেকে নির্গত রশ্মি শিশুদের চোখ এবং মস্তিষ্কের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। বিশেষজ্ঞদের মতে, অতিমাত্রায় স্মার্টফোন এবং টেলিভিশন দেখার প্রভাব শুধু চোখ এবং মস্তিষ্কের ক্ষতির মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়, বরং দৈনিক তিন ঘণ্টার বেশি প্রযুক্তিগুলোর পর্দার সামনে অতিবাহিত করা শিশুদের মানষিক বিকারগ্রস্ত এবং ডায়াবেটিসসহ বড় ধরনের রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিও থাকে প্রবল।

রামিসা আনান জারা ও হাসান ফেরদৌস রাইয়ান। দু’জনই দিনের অধিকাংশ সময় মোবাইল বা ল্যাপটপে কাটায়। এতে প্রযুক্তিগত দিক থেকে জ্ঞান বাড়লেও, শারীরিক ও মানষিকভাবে দূর্বল তারা।

অনেকটা মাদকাশক্তির মতো এভাবে স্মার্টফোন বা কম্পিউটার আশক্ত দেশের ???কয়েক লাখ শিশু। শিশু থেকে কিশোর, সবার মাঝেই স্মার্টফোন আসক্তি এখন চরম পর্যায়ে।

অভিভাবকরা জানান, বাচ্চারা পড়ার টেবিলে মুঠোফোনেই সময় বেশি খরচ করে। এতে স্বাস্থ্যহানির পাশাপাশি লেখাপড়াতেও ঘটছে ব্যাঘাত।

শিশু থেকেই মুঠোফোনের উপর নির্ভরশীল হওয়ায়, বাড়ছে না স্মৃতিশক্তিও। নিশ্চিত এমন ক্ষতি জেনেও অনেকটা বাধ্য হয়েই শিশুদের হাতে স্মার্টফোন তুলে দিচ্ছেন অভিভাবকরা।

প্রযুক্তি ব্যবহারে বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে, ঢাকা শিশু হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছে/ নিচ্ছে শতাধিক। শিশু থেকে প্রযুক্তি ব্যবহারের ভয়াবহতা তুলে ধরেন এই বিশেষজ্ঞ।

স্মার্টফোন শুধু শিশুর আসক্তিই বাড়াচ্ছে না, পেন্সিল বা কলম ধরার ক্ষমতাও কমিয়ে দিতে পারে। তাই স্মার্টফোন বা কম্পিউটার ব্যবহারে, অভিভাবকদের সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন এই বিশেষজ্ঞ।

 

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন