প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালেও হবে লাতিন আমেরিকা বনাম ইউরোপের লড়াই

0

প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালেও হবে লাতিন আমেরিকা বনাম ইউরোপের লড়াই। যেখানে মুখোমুখি হবে দুই সাবেক চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স ও উরুগুয়ে। নিজনি নভগোরোদ স্টেডিয়ামে শুক্রবার বাংলাদেশ সময় খেলা শুরু হবে রাত ৮টায় ।

বিশ্বকাপের একমাত্র কোয়ার্টার-ফাইনাল যেখানে মুখোমুখি সাবেক দুই বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। নিজনি নভগোরোদ স্টেডিয়ামে চলতি আসরের শেষ ম্যাচ হবে এটি।

এর আগে বিশ্বকাপে উরুগুয়ে ও ফ্রান্সের দেখা হয়েছে তিনবার। ১৯৬৬ সালে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে প্রথম দেখায় ২-১ গোলের জয়–লাতিন পরাশক্তিদের। পরের দুই ম্যাচ হয়েছে গোলশূন্য ড্র।

সপ্তমবারের মতো বিশ্বকাপের কোয়ার্টার-ফাইনালে খেলবে ফ্রান্স। শেষ আটে আগের ছয় ম্যাচে চার জয়ের সঙ্গে আছে দুই হার। এবারের আসরে গ্রুপ পর্বে দুই জয় ও এক ড্রয়ে ‘সি’ গ্রুপের সেরা ফরাসি’রা। শেষ ষোলোতে এমবাপে নৈপুন্যে ৪-৩ গোলে আর্জেন্টিনাকে হারায় দিদিয়ে দেশমের দল। আর তাইতো ফরাসি’রা স্বপ্ন বুনছে তাকে ঘিরেই।

নিষেধাজ্ঞায় শেষ আটের গুরুত্বপূর্ণ লড়াইয়ে ফ্রান্স পাচ্ছে না মিডফিল্ডার ব্লেইস মাতুইদিকে। দলে জিরুদ, বাঁজামাঁ পাভার্দ, পল পগবা ও কোরোঁতাঁ তোলিসো থাকলেও ভয় আছে একটি হলুদ কার্ড পেলেই এক ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হওয়ার। একাদশে আরো থাকছেন লুকা এরনঁদেজ।

অন্যদিকে, তিন ম্যাচেই জয় নিয়ে ‘এ’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হয় উরুগুয়ে। শেষ ষোলো’তে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর পর্তুগালের বিপক্ষে ২-১ গোলের জয় নিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে তারা।

এর আগে উরুগুয়ে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার-ফাইনাল খেলেছে চারবার। তিনবারই জয় নিয়ে সেমি-ফাইনালে পৌঁছে তারা। অন্য ম্যাচটিতে ১৯৬৬ সালে পশ্চিম জার্মানির কাছে পরাজিত হয় দুই বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

এবারের আসরে দারুন ছন্দে আছে উরুগুয়ের রক্ষণভাগও। হোসে মারিয়া হিমেনেস ও দিয়েগো গদিন দৃঢ়তায়–চার ম্যাচে মাত্র ১ গোল হজম করেছে তারা।

টানা সাত জয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে খেলতে নামবে উরুগুয়ে। শেষ সাত ম্যাচে নিজেরা গোল করেছেন ১৩টি। গেলো বছর অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে শেষ হেরেছিল উরুগুয়ের বিশ্বকাপ।

লুইস সুয়ারেজ আর কাভানি জুটির রসায়ন ভেঙ্গে দিতে পারে ফ্রান্সের রক্ষণ দূর্গ। চলতি আসরে উরুগুয়ের শেষ তিনটি গোলই করেছেন এডিনসন কাভানি। এখান দেখা যাক জয় হয় কাদের। লাতিন নাকি ইউরোপের।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন