পাহাড়ি ঢল ও টানা বৃষ্টিতে নিচু এলাকা ডুবে গেছে

0

পাহাড়ি ঢল ও টানা বৃষ্টিতে রাঙ্গামাটির কাপ্তাই হ্রদের পানি বেড়ে কয়েকটি উপজেলার নিচু এলাকা ডুবে গেছে। এছাড়া প্রবল জোয়ারে সাতক্ষীরায় খোলপেটুয়া নদীর বেঁড়িবাধ ভেঙে পাঁচটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।

পাহাড়ি ঢলে রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি, লংগদু, বরকল ও জুরাছড়ি উপজেলার নিচু এলাকা এখন পানির নীচে। ২৫ হাজারেরও বেশি মানুষ পানিবন্দি রয়েছে। কেউ কেউ ঘরবাড়ি ছেড়ে উঁচু এলাকা ও আশ্রয়কেন্দ্রে উঠয়েছেন। পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় লংগদু ও বাঘাইছড়ির কয়েকটি সড়কে চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে।বাঘাইছড়িতে দুর্গত মানুষের জন্য ২০টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে।

এদিকে, সকালে খাগড়াছড়িতে পাহাড়ি ঢলে সৃষ্ট বন্যায় আটকা পড়াদের উদ্ধার করে তাদের মধ্যে রান্না করা ও শুকনো খাবার বিতরণ করেন খাগড়াছড়ি সদর জোনের কোয়ার্টার মাস্টার লেফটেন্যান্ট কর্ণেল মো. আহসান হাবীব।

সাতক্ষীরার আশাশুনির বিছটে, প্রবল জোয়ারের চাপে খোলপেটুয়া নদীর বেঁড়িবাধ ভেঙে পাঁচটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। দুপুরে উপজেলার আনুলিয়া ইউনিয়নের বিছট গ্রামে খোলপেটুয়া নদীর তিনটি স্থানে প্রায় দেড়’শ ফুট বেঁড়িবাধ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়।এতে পানিতে তলিয়ে গেছে শতাধিক মৎস্য ঘের ও ফসলি জমি।বেড়িবাধটি সংস্কার না হলে পরবর্তী জোয়ারে আরো এলাকা প্লাবিত হওয়ার আশংকা করছে তারা।পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা জানান, ভাঙনকবলিত এলাকা সংস্কারে রিং বাধ দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। দ্রুত কাজ শেষ হওয়ার আশ্বাসও দেন তিনি ।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন