নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করা বাংলাদেশর জন্য বড় চ্যালেঞ্জ

0

নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করা বাংলাদেশর জন্য বড় চ্যালেঞ্জ বলে জানিয়েছেন, শিল্পমন্ত্রী আমীর হোসেন আমু। তবে খাদ্যপণ্য মানসম্মত করতে, বিএসটিআই এবং ফুড টেস্টিং ল্যাবরেটরির সক্ষমতা বাড়ানো হচ্ছে বলেও জানান তিনি। রাজধানীতে নিরাপদ খাদ্য সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে, খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশের খাদ্য নিরাপত্তা বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো উন্নত করতে হবে।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ: সকলের সম্মিলিত দায়িত্ব– এই প্রতিপাদ্যে রাজধানীতে প্রথমবারের মতো শুরু হয়েছে দু’দিনের নিরাপদ খাদ্য সম্মেলনে। সম্মিলিতভাবে ১৯টি স্থানীয় ও বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানের আয়োজনে সম্মেলনে নিরাপদ খাদ্য ব্যবস্থাপনা বিধি-বিধান জোরদার ও যথাযথ বাস্তবায়নের তাগিদ দেন আলোচকরা।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বর্তমানে দেশে ২৫ লাখ ব্যবসায়ী খাদ্য ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। এরমধ্যে ১৫ লাখ সরাসরি এবং বাকিরা পরোক্ষভাবে জড়তি। এছাড়া ২৫৬টি শিল্প-প্রতিষ্ঠান খাদ্য উৎপাদন করছে। সর্বস্তরেই খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে বলে জানান খাদ্যমন্ত্রী। এসময় শিল্পমন্ত্রী জানান, দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিশ্বের ১৪০টি দেশে প্রক্রিয়াজাতকরণ খাদ্য রপ্তানি হচ্ছে। আগামী ২০২১ সালের মধ্যে খাদ্য রপ্তানির পরিমাণ একশো কোটি ডলার হবে বলেও তার আশা। উদ্যোক্তাদের উৎসাহিত করতে খাদ্যপণ্য রপ্তানির বিপরীতে ২০ ভাগ ভর্তুকি দেয়া হচ্ছে বলেও জানান, আমির হোসেন আমু।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন