নিজেদের আত্মরক্ষার্থে মেয়েরা বুত্থান মার্শাল আর্ট ও তায়াকোয়ানডো শিখছেন

0

সামাজিক অস্থিরতা ও নিরাপত্তাহীনতার কারণে নিজেদের আত্মরক্ষার্থে সাতক্ষীরার মেয়েরা বুত্থান মার্শাল আর্ট ও তায়াকোয়ানডো শিখছেন। কোরিয়ার এ আত্মরক্ষামূলক কৌশল ছেলে-মেয়েদের শারীরিক, মানসিক ও মেধা বিকাশের অন্যতম মাধ্যম হিসেবে কাজ করে। ফলে ছেলেদের পাশাপাশি সাতক্ষীরার মেয়েরাই বেশি আগ্রহ প্রকাশ করছে মার্শাল আর্টের প্রতি।

ক্রীড়াঙ্গনে সাতক্ষীরার একটি পরিচিত নাম। আর এজন্য ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েদের ভূমিকা কোন অংশে কম নয়। সম্প্রতি সাফ এশিয়া গেমসে তাইকোন্ডোতে সাতক্ষীরার মেয়ে হিসাবে প্রথম বারের মতো আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ব্রোঞ্জ পদক পেয়েছে সুমাইয়া ইমরোজ। এছাড়া জাতীয় পর্যায়ে ১৭টি গোল্ড, ৮টি রুপা ও ৬টি ব্রোঞ্জ পদক জিতেছেন সুমাইয়া।

সুমাইয়ার এই সফলতায় খুশি তার বাবা-মা। সুমাইয়ার মতো অন্য মেয়েদের নিজের আত্মরক্ষার জন্য মার্শাল আর্ট শেখার পরামর্শ তাদের। প্রাথমিক পর্যায়ে নিজেকে আত্মরক্ষার জন্য তাইকোন্ডো শিখলেও বর্তমানে সেটাকে খেলা ও পেশা হিসাবে গ্রহণ করছে অনেকে। বর্তমান পেক্ষাপটে নিজেদের আত্মরক্ষার পাশাপাশি ছেলে-মেয়েদের শারীরিক, মানসিক ও মেধা বিকাশে মার্শাল আর্ট খুবই জরুরি বলে মনে করেন এই প্রশিক্ষক।

সাতক্ষীরার ক্রীড়াঙ্গনের সুনাম অক্ষুন্ন রাখতে ছেলে-মেয়েদের প্রতিটি খেলাধুলায় অংশগ্রহণ নিশ্চিত ও বিশেষ এই খেলার পৃষ্ঠপোষকতা দেয়ার আশ্বাস দিয়েছে জেলা ক্রীড়া সংস্থা। সরকারের প্রয়োজনীয় পৃষ্ঠপোষকতা পেলে ক্রিকেট-ফুটবলের মতো মার্শাল আর্টেও ছেলে-মেয়েরা সাতক্ষীরার ক্রীড়াঙ্গনকে সর্বোচ্চে মর্যাদায় পৌঁছে দিতে পারবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন