নিউজিল্যান্ডে পাঁচ বাংলাদেশিসহ নিহতদের মৃতদেহ শনাক্ত

0

নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসে সবচে’ ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলায় ৫০ জন নিহত হওয়ার পর সাধারণ নাগরিকদের জন্য সেমি-অটোমেটিক ও অ্যাসাল্ট রাইফেল নিষিদ্ধের ঘোষণা দিলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন। এদিকে, পাঁচ বাংলাদেশিসহ নিহতদের মৃতদেহ শনাক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ কমিশনার মাইক বুশ।

ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার ছয় দিন পর নিউজিল্যান্ডে সাধারণ নাগরিকদের জন্য সব ধরনের সেমি-অটোমেটিক রাইফেল নিষিদ্ধ করা হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন। বৃহস্পতিবার এক বক্তব্যে একথা জানান তিনি।

“এখন, হামলার ছয় দিন পর, আমরা নিউজিল্যান্ডে সবরকমের সেমি-অটোমেটিক অ্যাসাল্ট রাইফেল নিষিদ্ধের ঘোষণা করছি। সবরকম উচ্চ ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন ম্যাগাজিনের পাশাপাশি বন্দুককে স্বয়ংক্রিয় করতে ব্যবহার করা পার্টসও নিষিদ্ধ হচ্ছে। আগামী ১১ এপ্রিল থেকে এই আইন বাস্তবায়ন হবে। তবে এই অস্ত্র আইন কিছু মানুষের জন্য শিথিল থাকবে। এখন থেকে দেশটির অস্ত্র ব্যবসায়ীদের এ আইন অনুসরণ করার জন্য অনুরোধ করছি।”

৫০ লাখেরও কম জনসংখ্যার দেশ নিউজিল্যান্ডে ১২ থেকে ১৫ লাখ মানুষের হাতে রয়েছে লাইসেন্স করা আগ্নেয়াস্ত্র। এগুলোর মধ্যে সাড়ে ১৩ হাজার হলো স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র।

এদিকে, আল নূর ও লিনউড মসজিদে হামলায় নিহত ৫০ জনের মৃতদেহ শনাক্ত করা হয়েছে বলে জানান দেশটির পুলিশ কমিশনার মাইক বুশ।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন