নারীরা সাইবার ক্রাইমের সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে

0

দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের মধ্যে নারীরা সাইবার ক্রাইমের সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে বলে মনে করে ‘সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশন’। সংগঠনটির গবেষণা বলছে, ১৮ থেকে ৩০ বছর কম বয়সী নারীদের মধ্যে ৭৩ শতাংশই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হয়রানির শিকার হচ্ছেন। সামাজিক কারণে– তাদের বেশিরভাগই নিতে চাননা আইনী পদক্ষেপ। ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে প্রতিবেদন প্রকাশ করে সংগঠনটি।

তথ্য প্রযুক্তির উন্নয়নে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায়, মানুষের জীবনযাপনেও পরিবর্তন এসেছে। বেড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ব্যবহার। বাংলাদেশে এখন ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় তিন কোটি।

কিন্তু গবেষণা বলছে, ফেসবুকে সাইবার অপরাধ বাড়ছে। যার বেশি শিকার হচ্ছে ১৮ থেকে ৩০ বছর বয়সী নারীরা। এর মধ্যে আছে, ভুয়া একাউন্ট খুলে অপপ্রচার, ছবি বিকৃত করে অনলাইনে ছড়িয়ে দেয়া, হুমকিমূলক বার্তা, পর্ণো ভিডিও, অনলাইনে কেনা-কাটায় প্রতারণা, আইডি হ্যাক বা তথ্যচুরির মতো ঘটনা। সাইবার অপরাধের ৫১ দশমিক ১৩ শতাংশ নারী সংখ্যা আর ৪৮ দশমিক ৮৭ শতাংশ পুরুষ শিকার হচ্ছেন।

প্রতিবেদন বলছে, সাইবার অপরাধের শিকার হলেও কীভাবে আইনী পদক্ষেপ নেয়া যায়, তা জানে না ৩০ শতাংশ নারী। আস্থাহীনতা অভিযোগ করেন না ২৫ শতাংশ। আর সামাজিক কারণে– প্রকাশ করেন না ১৭ শতাংশ নারী।

যুগের চাহিদায় তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়বে। তাই সচেতনতা, অপরাধীদের তাৎক্ষণিক শাস্তি ও আইনের প্রয়োগ হলে– সাইবার অপরাধ থেকে নিরাপদ থাকা সম্ভব বলে মনে করেন প্রযুক্তিবিদরা।

ইন্টারনেট ব্যবহার নিরাপদ করতে শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানগুলোতে সাইবার সচেতনতামূলক কর্মশালা বাড়ানোর পরামর্শ প্রযুক্তিবিদদের।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন