নবীন কর্মকর্তাদের ত্রিমাত্রিক সক্ষমতার সর্বোচ্চ ব্যবহারের আহ্বান

0

প্রতিবেশী দেশগুলোর সাথে সহাবস্থানের মধ্য দিয়ে সমুদ্রসীমার সার্বভৌমত্ব রক্ষায় নবীন কর্মকর্তাদের ত্রিমাত্রিক সক্ষমতার সর্বোচ্চ ব্যবহারের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় নেভাল একাডেমিতে শীতকালীন রাষ্ট্রপতির কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও নবীন কর্মকর্তাদের কমিশন প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই আহবান জানান। পরে কর্ণফূলী নদীতে বাংলাদেশে তৈরি নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী।

দেশের সমুদ্রসীমা ও সমুদ্রসম্পদ রক্ষায় অতন্দ্র প্রহরী নৌবাহিনীর আরো একদল তরুণ দক্ষ ও প্রশিক্ষিত অফিসার কমিশন পেলো। ২১ নারীসহ ২০১৫ ব্যাচের ডিইও ও ২০১৭-বি ব্যাচের মিডশিপম্যান পদে পদোন্নতি পাওয়া ১০৪ সেরা কর্মকর্তার কমিশন প্রদানের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রথমেই তিনি রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও সালাম গ্রহণ করেন। এরপর দেশের জল, স্থল ও আকাশ পথের রক্ষায় শপথ পাঠ করেন তরুণ অফিসাররা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যের শুরুতেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চার নেতাসহ মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী। ইউনিস্কোতে স্বীকৃতি পাওয়া বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের প্রেক্ষাপট তুলে ধরে নতুন অফিসারদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় শ্রদ্ধাশীল থাকার আহবান জানান প্রধানমন্ত্রী। এসময় ২১ নারী সদস্য কমিশন পাওয়ায় নারী উন্নয়ন ও ক্ষমতায়নে সরকারের আন্তরিকতার বহিঃপ্রকাশ বলে মন্তব্য করেন সরকার প্রধান।

নৌবাহিনীকে আধুনিক বাহিনীতে পরিণত করতে বর্তমান সরকারের নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করেন শেখ হাসিনা বলেন, যেকোন দুর্যোগ ও সংকট মোকাবেলার সক্ষমতা রয়েছে বাংলাদেশের। পরে কমিশন পাওয়া ১০৪ মিডশিপম্যানকে ব্যাচ পড়িয়ে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন