দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরা

0

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরা। এ জেলাকে একটি আধুনিক জেলা হিসাবে রুপান্তর করতে নদী ভাঙন রোধ, সুন্দরবনে আধুনিক পর্যাটন কেন্দ্র, ভোমরা স্থলবন্দরের অবকাঠামো উন্নয়ন, সুন্দরবন টেক্সটাইল মিলস চালু ও রেল যোগাযোগ বাস্তবায়নে বাজেটে বিশেষ বরাদ্দ চান সাতক্ষীরার বিশিষ্টজনরা।

৩ হাজার ৮৫৮ দশমিক তিন তিন কিলোমিটার আয়তন নিয়ে গঠিত সাতক্ষীরা জেলা। এ জেলার ৭টি উপজেলা, ৮টি থানা, ২টি পৌরসভা, ৭৮টি ইউনিয়ন এবং ১ হাজার ৪২৩টি গ্রাম নিয়ে চারটি সংসদীয় আসন গঠিত। এ জেলার মোট জনসংখ্যা ২২ লাখ। যার অধিকাংশ লোক কৃষি ও মৎস পেশার সঙ্গে জড়িত।

এ জেলার উন্নয়ন প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়নসহ আগামী বাজেটে অর্থনৈতিক অঞ্চল ঘোষণার মাধ্যমে সুন্দরবন টেক্সটাইল মিলস্ চালু, শিল্প কলকারখানা তৈরী, আধুনিক সুন্দরবন পর্যাটন কেন্দ্র, ভোমরা স্থলবন্দরের অবকাঠাম উন্নয়ন, সড়ক ও রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা বাস্তবায়ন, বেকারত্ব দূরীকরণ, কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং শিক্ষা ও কৃষিবান্ধব বাজে চান স্থানীয়রা।
বাজটে রেল লাইন ও সুন্দরবনে আধুনিক পর্যাটন কেন্দ্র বাস্তবায়ন করে সাতক্ষীরা জেলাকে অর্থনৈতিক জোন গড়ে তোলার দাবি নাগরিক আন্দোলন মঞ্চের সভাপতির। আর চিংড়িখাতে ভর্তুকিসহ ভোমরা স্থলবন্দরের জন্য বিশেষ বরাদ্দের দাবি উঠেছে।

বাজটে রেল লাইন ও সুন্দরবনে আধুনিক পর্যাটন কেন্দ্র বাস্তবায়ন করে সাতক্ষীরা জেলাকে অর্থনৈতিক জোন গড়ে তোলার দাবি নাগরিক আন্দোলন মঞ্চের সভাপতির। আর চিংড়িখাতে ভর্তুকিসহ ভোমরা স্থলবন্দরের জন্য বিশেষ বরাদ্দের দাবি উঠেছে।

বেকারত্ব দূরীকরণে সুন্দরবন টেক্সটাইল মিলস পূর্ণাঙ্গভাবে চালু ও নদী খননের জন্য বাজেটে বিশেষ বরাদ্দের দাবি করলেন এই শীর্ষ ব্যবসায়ী নেতা। পিছিয়ে পড়া জনপদের উন্নয়নে জেলা পর্যায়ে আলাদা বাজেট ঘোষণার মধ্য দিয়ে সংকট নিরসন হবে, এমনই প্রত্যাশা সাতক্ষীরাবাসী।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন