জমি দখলে নিয়ে আরএমপির সদর দপ্তর নির্মাণের কাজ শুরু

0

জেলা পরিষদের ডাকবাংলো ভেঙে ও জমি দখলে নিয়ে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ-আরএমপির সদর দপ্তর নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে। জেলা পরিষদ বার বার নালিশ করলেও পাত্তা দেয় নি আরএমপি। ফলে জমির বিবাদ গড়ায় সংশ্লিষ্ট দুই মন্ত্রণালয়ে। এনিয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকের পর, অবশেষে ভবনের নির্মাণকাজ বন্ধ করে দিয়েছে গণপূর্ত অধিদপ্তর।

নগরীর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সিএন্ডবি মোড় এলাকার শ্রীরামপুর মৌজার ২৩ নম্বর খতিয়ানে প্রায় ১৮ বিঘা জমি রাজশাহী জেলা পরিষদের নামে রেকর্ডভূক্ত। এই জমিতে থাকা ডাকবাংলোটি ১৯৯২ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকেই আরএমপি সদর দপ্তর হিসেবে ব্যবহার করে আসছিল। এজন্য তারা মাসিক ৮ হাজার টাকা করে ভাড়া পরিশোধ করে জেলা পরিষদকে।এরমধ্যে ২০১৮ সালে জুনে এক দশমিক ৩৯৫ একর জমি প্রায় পৌনে দুই কোটি টাকায় কিনে নেয় আরএমপি।

তবে জেলা পরিষদের অভিযোগ, আরএমপির কেনা জমির বাইরে থাকা ডাকবাংলোটিও তারা দখলে নিয়ে ভেঙে ফেলার পর নতুন ভবন নির্মাণ করছে।

জমি নিয়ে এই বিরোধ গড়ায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে। ২২ আগস্ট দু’মন্ত্রণালয়ের সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত নির্মাণ কাজ বন্ধে গণপূর্ত মন্ত্রণালয়কে চিঠি দেয়া হয়েছে।

এতোদিন জেলা পরিষদের অভিযোগ আমলে না নিলেও এখন আরএমপি বলছে, মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ভেঙে ফেলা ডাকবাংলোটি বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিবিজড়িত। তাই এটি সংরক্ষণ না করে ভেঙে ফেলায় ক্ষোভ জানিয়েছেন অনেকেই।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন