ছেলেধরা গুজব ছড়িয়ে গণপিটুনিতে হত্যা বন্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ

0

সম্প্রতি রাজধানীসহ দেশের বিভিন্নস্থানে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে নিহত হয়েছে বেশ ক’জন। আহত হয়েছে অনেকে। এসব ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে, জনগণকে সচেতন ও গুজবে কান না দেয়ার আহ্বান জানিয়েছে পুলিশ সদর দপ্তর। পাশাপাশি গণপিটুনির বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ারও হুঁশিয়ারি দিয়েছে। এদিকে, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, যারা নিজের হাতে আইন তুলে নেবে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গেলো ২০ জুলাই ঢাকার বাড্ডায় সন্তানকে ভর্তির জন্য স্কুলের খোঁজে গেলে ছেলেধরা সন্দেহে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয় রেনু বেগম নামে এক নারীকে। দুই শিশু সন্তানের মা নিরীহ রেনু বেগমের হত্যাকাণ্ড ব্যাপকভাবে নাড়া দিয়েছে সাধারণ মানুষকে।

এছাড়া, নারায়ণগঞ্জ, সাভার, কেরানীগঞ্জ এবং মৌলভীবাজারে ৪ জনকে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করা হয়। এসব ঘটনায় পুলিশ জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলার পাশাপাশি আটক করেছে অনেককে।

বাড্ডায় রেনু বেগম নিহতের ঘটনায় অভিযুক্ত জাফর শাহীন বাপ্পিসহ ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে তিনজনকে আদালতের মাধ্যমে চার দিনের রিমাণ্ডে নেয়া হয়েছে।

ছেলেধরা সন্দেহে সারাদেশে গণপিটুনির ঘটনায় আতঙ্কে ভুগছেন সাধারণ মানুষ। এমন অবস্থায়, পুলিশ সদর দপ্তরের পক্ষ থেকে গণপিটুনি বন্ধে ব্যবস্থা নিতে পুলিশের সব ইউনিটকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

এ সংক্রান্ত এক চিঠিতে বলা হয়েছে, গণপিটুনি দিয়ে হত্যা এবং গুজব ছড়িয়ে দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করা ফৌজদারি অপরাধ। এর মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কেন্দ্রিক নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে—সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে টহল ও গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানো। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর শিক্ষক, গভর্নিং বডির সদস্য এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা, অভিভাবকদের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করাসহ আরো কিছু নির্দেশনা।

এদিকে, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, পদ্মা সেতুতে মাথা লাগবে– এ ধরনের একটি গুজব ছড়িয়ে একটি মহল দেশের বিভিন্ন জায়গায় গণপিটুনিতে উস্কানী তৈরি করছে। তিনি সবাইকে গুজবে কান না দেয়ার আহ্বান জানান।

নেত্রকোনা জেলা আইনজীবী সমিতির নবনির্মিত ৫তলা ভবনের উদ্বোধনকালে আইনমন্ত্রী একথা বলেন।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন