চাঁদপুর প্রায় দেড় হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নেই শহীদ মিনার

0

চাঁদপুর জেলার প্রায় দেড় হাজার সরকারি- বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নেই শহীদ মিনার। এ তালিকায় রয়েছে ৯ শতাধিক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ও। তাই ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে শিশু শিক্ষার্থীদের যেতে হয় অন্য বিদ্যালয় বা কলেজে। বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে শহীদ মিনার না থাকায়, বাংলা ভাষার গৌরবময় ইতিহাস অনেকটাই অজানাই থেকে যাচ্ছে ভবিষ্যত প্রজন্মের কাছে।

চাঁদপুর শহরের নামী দামী বেসরকারি বিদ্যালয়গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি ড্যাফডিল ইন্টারন্যাশনাল স্কুল । এ বিদ্যালয়েও যেমন নেই শহীদ মিনার ঠিক তেমনি চট্টগ্রাম বিভাগের সেরা স্কুল হাসান আলী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়েও নেই কোন শহীদ মিনার ।

চাঁদপুর জেলার মোট ১১শ’ ৫৫টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মধ্যে ৯শ ৯৪টি বিদ্যালয়েই নেই ভাষা শহীদদের স্মৃতিস্তম্ভ ‘শহীদ মিনার’। এতে করে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও শহীদ দিবস উদযাপনে শিক্ষার্থীদের যেতে হয় দূর দূরান্তে। একই অবস্থা জেলার বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলোতেও।

ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে অনেক বিদ্যালয়ের দেয়ালে আঁকা হয়েছে শহীদ মিনার। বিদ্যালয়গুলোতে স্থায়ীভাবে শহীদ মিনার না থাকায় ভবিষ্যত প্রজন্ম বাংলা ভাষার জন্যে যারা প্রাণ দিয়েছে তাদের ইতিহাস সম্পর্কে জানতে পারছে না।

বিদ্যালয়গুলোতে শহীদ মিনার স্থাপনে উদ্যোগ নেয়ার প্রযোজনীয়তার কথা জানালেন এই শিক্ষা কর্মকর্তাও।

মাতৃভাষার জন্য প্রাণ দেয়া ভাষা-বীরদের কথা আগামির প্রজন্মের কাছে স্মরণীয় করে রাখতে বিদ্যালয়গুলোতে শহীদ মিনার নির্মাণের দাবি এলাকাবাসীর।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন