চলন্ত বাসে রূপা গণধর্ষণ ও হত্যা মামলায় চারজনের ফাঁসি

0

টাঙ্গাইলে চলন্ত বাসে রূপা গণধর্ষণ ও হত্যা মামলায় চারজনের ফাঁসি এবং একজনের সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। সকালে, টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের ভারপ্রাপ্ত বিচারক এবং অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক আবুল মনসুর মিয়া এ রায় দেন। এ রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বাদীর পরিবার ও রাষ্ট্রপক্ষ। এদিকে, এ রায়ে অসন্তোষ জানিয়ে উচ্চ আদালতে আপিল করার কথা জানিয়েছেন বিবাদী পক্ষের আইনজীবী।

টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল রূপা ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় ছোঁয়া পরিবহনের হেলপার শামীম, আকরাম, জাহাঙ্গীর ও চালক হাবিবুরকে ফাঁসির দণ্ড প্রদান করেছে। আর বয়স বিবেচনায় সুপারভাইজার সফর আলী’কে এক লাখ টাকা জরিমানাসহ প্রদান করেছে সাত বছরের কারাদণ্ড।

রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছে বাদীপক্ষ। তবে, ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হওয়ার দাবি করে— উচ্চ আদালতে যাওয়ার কথা জানিয়েছে। এদিকে, রুপা হত্যা মামলার রায়ে সিরাজগঞ্জের তাড়াশে তার পরিবার ও এলাকাবাসী সন্তোষ প্রকাশ করেছে। একইসঙ্গে দ্রুত রায় কার্যকরের দাবিও জানিয়েছে তারা।

গত বছরের ২৫ অগস্ট রাতে বগুড়া থেকে ময়মনসিংহ যাওয়ার পথে মধুপুরে ঢাকা আইডিয়াল ল কলেজের ছাত্রী রুপাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। ২৮ আগস্ট এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের প্রত্যেকে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দেয়।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন