চব্বিশ অপরাধে সাজার বিধান রেখে সম্প্রচার আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

0

মিথ্যা বিভ্রান্তিকর, মুক্তিযুদ্ধ ও রাষ্ট্রবিরোধী তথ্য সম্প্রচারের মতো ২৪টি অপরাধের জন্য সাজার বিধান রেখে সম্প্রচার আইন-২০১৮ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সর্বোচ্চ সাজা রাখা হয়েছে সাত বছর কারাদন্ড এবং একইসাথে ৫ কোটি টাকা জরিমানা। সপ্তাহে ৩৬ কর্মঘন্টা, বছর শেষে অর্জিত ছুটি ৩০ দিন এবং প্রভিডেন্ট ফান্ডের মতো বিধান যুক্ত করে গণমাধ্যম কর্মীদের চাকরির শর্তাবলী নামের আরেকটি আইনের খসড়াও অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। আইন অমান্যে সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এসবের অনুমোদন দেয়া হয়।

অনলাইন, টেলিভিশন এবং বেতারের জন্য সম্প্রচার আইনটি নতুন। খসড়া প্রস্তাবনায় বলা হয়েছে– সম্প্রচার ব্যবস্থাপনার কাজ গতিশীল করতে, লাইসেন্স প্রদান, নবায়ন, বাতিল ও বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য এই আইনের আওতায় সাত সদস্যের একটি কমিশন গঠিত হবে। পাঁচ সদস্যের সার্চ কমিটি, কমিশনের সদস্য নির্বাচন করবেন।

ঋণ খেলাপি, দু’বছরের সাজাপ্রাপ্ত ও অপ্রকৃতিস্থ কোনো ব্যক্তি কমিশনের সদস্য হতে পারবে না। এছাড়া, সরকারি লাভজনক কাজে নিয়োজিতদের ছাড়া কমপক্ষে সম্প্রচার, আইন, ব্যবস্থাপনা ও ভোক্তা জ্ঞান সর্ম্পকে ১৫ বছর অভিজ্ঞ ব্যক্তিকে নিয়োগ দেওয়া হয়।

সরকারের অনুমতি নিয়ে লাইসেন্স দেবে কমিশন। এর বাইরে নবায়ন, বাতিল এবং ভোক্তার অভিযোগ ৩০ দিনের মধ্যে নিষ্পত্তি করবে।

আইন অনুসারে– বিকৃত ও অসত্য তথ্য উত্থাপন, মুক্তিযুদ্ধ সর্ম্পকে মিথ্যা তথ্য, রাষ্ট্রীয় অখন্ডতা ও গুরুত্বপূর্ণ দলিল সর্ম্পকে অসত্য তথ্য দেয়াসহ ২৪টি অপরাধ নির্ধারণ করা হয়েছে।

মন্ত্রিসভায় এদিন গণমাধ্যমকর্মী আইনের খসড়ারও অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সেখানে বেশক’টি বিষয় নতুনভাবে সংযোজন করা করা হয়েছে।
গণমাধ্যম কর্মীদের জন্য নতুন সুবিধাগুলো হলো– চাকরি এক বছর পূর্তি হলে প্রভিডেন্ট ফান্ড চালু, সপ্তাহে মোট ৩৬ কর্মঘন্টা নির্ধারণ, অর্জিত ছুটি বছরে ৩০ দিন, উৎসব ও অসুস্থতা জনিত ছুটি ২৫ দিন, প্রতিষ্ঠানে ৩ বছর পূর্ণ হলে বিনোদনের জন্য ৩০ দিনের ছুটি।

সচিব বলেন, আইনের ১৪ ধারা অনুসারে ওয়েজ বোর্ডের সিদ্ধান্ত সম্প্রচার ও প্রিন্ট মিডিয়া পালন করতে বাধ্য। এর বাইরে কর্মীর জন্য স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা বীমার ব্যবস্থা রাখতেও প্রতিষ্ঠানের প্রতি সুপারিশ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন