গোপালগঞ্জে প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের মাধ্যমে প্রস্তুতি শুরু করেছে সাইক্লিং ফেডারেশন

0

আসন্ন ১৩তম সাউথ এশিয়ান গেমসকে কেন্দ্র করে গোপালগঞ্জে প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের মাধ্যমে প্রস্তুতি শুরু করেছে সাইক্লিং ফেডারেশন। জাতীয় দলের খোলোয়াড়রা প্রায় ১ মাস ধরে প্রস্তুতি নিচ্ছেন। তবে স্থায়ী প্রশিক্ষক, সারা বছর প্রস্তুতি ও একটি স্থায়ী ভেন্যূ না থাকায় সমস্যা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কোচ-খেলোয়াড়রা।

আগামী ১ থেকে ১০ ডিসেম্বর নেপালের কাঠমান্ডু ও পোখরায় অনুষ্ঠিত হবে দক্ষিণ এশিয়ার অলিম্পিক খ্যাত সাউথ এশিয়ান গেমসের ১৩তম আসর। এ গেমসের জন্য গোপালগঞ্জে প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের মাধ্যমে প্রস্তুতি শুরু করেছে জাতীয় সাইকেলিং দল। আউটডোরে প্রতিদিন ভোরে ১০০ কিলোমিটার সড়কে সাইকেলিং করার পাশাপাশি ইনডোরেও প্রস্তুতি নিচ্ছেন খেলোয়াড়রা। আগামী নভেম্বর পর্যন্ত চলবে এ প্রশিক্ষণ ক্যাম্প। সাইকেলিং ইভেন্টের দুই একটি হয় রাস্তায়। এছাড়া বাকী ইভেন্টগুলো ভেলুড্রামে হয়ে থাকে। তবে দেশে কোন ভেলুড্রাম না থাকায় প্রতিযোগীতায় গিয়ে সমস্যায় পড়তে হয় খেলোয়াড়দের। তারপরও এবারের আসরে ভাল ফলাফল করার আশা করছেন খেলোয়াড়রা।

সাইকেলিং ফেডারেশনের স্বদিচ্ছা ও জেলাভিত্তিক সাইকেলিং প্রতিযোগীতা আয়োজন করতে না পারার কারনে সাইক্লিষ্ট তৈরী করা যাচ্ছে না বলে জানালেন জেলা সাইকেলিং উপ-কমিটির এ সদস্য সচিব। সীমাবদ্ধতা, ভেলুড্রাম আর ফেডারেশনের উদাসিনতার কারনে প্রতিযোগীতায় খেলোয়াড়রা তাদের সেরাটা দিতে পারছে না বলেন স্বীকার করেন সাইকেলিং ফেডারেশনের কায্যনির্বাহী কমিটির এ সদস্য। তবে সব প্রতিকূলতার মধ্যেও শিয্যরা ১৩তম সাউথ এশিয়ান গেমসে ভাল ফলাফল করবে বলে মনে করেন এ প্রশিক্ষক। ভাল সাইক্লিষ্ট তৈরী ও প্রতিযোগীতায় ভাল ফলাফল করতে স্থায়ী প্রশিক্ষক নিয়োগ, ভেলুড্রাম তৈরীসহ দ্রুত ফেডারেশনের দ্বন্দের আবসান চান খেলোয়াড়রা

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন