গার্মেন্টের উচ্ছিষ্ট কাপড়ে তৈরী পোশাকে প্রাণ ফিরেছে পাবনার বিলুপ্তপ্রায় হোসিয়ারী শিল্পে

0

গার্মেন্টের উচ্ছিষ্ট কাপড়ে তৈরী পোশাকে প্রাণ ফিরেছে পাবনার বিলুপ্তপ্রায় হোসিয়ারী শিল্পে। ক্রমাগত চাহিদা বাড়ায় দেশের গণ্ডি ছাড়িয়ে এসব পোশাক রপ্তানি হচ্ছে বিদেশেও। সঠিক পৃষ্ঠপোষকতায় পরিত্যাক্ত কাপড়ের এ শিল্প অর্থনীতিতে সম্ভাবনার দুয়ার খুলবে, বলছেন সংশ্লিষ্টরা।

এ যেন ছাই উড়িয়ে অমূল্য রতন খুঁজে পাওয়া। রাজধানী ঢাকা, চট্টগ্রাম ও গাজীপুরসহ বিভিন্ন শিল্পাঞ্চলের তৈরী পোশাক কারখানায় প্রতিদিন ফেলে দেয়া হয় নমুনা ও কাটিংয়ের কাপড়। স্থানীয়ভাবে, ঝুট কাপড় হিসেবে পরিচিত এসব বাতিল কাপড়ই সম্ভাবনার জীবন কাঠি হয়ে ফিরেছে পাবনার হোসিয়ারী শিল্পে।

গেল দশ বছরে পাবনা সদর উপজেলার আশেপাশে বিভিন্ন গ্রামে ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা গড়ে তুলেছেন ঝুট কাপড় থেকে গেঞ্জি তৈরীর সহস্রাধিক কারখানা। প্রতি দিন এসব কারখানায় উৎপাদন হচ্ছে কয়েক হাজার পিস গেঞ্জি। এখানকার তৈরী পেশাক দেশের চাহিদা মিটিয়ে মালয়েশিয়াসহ বিভিন্ন দেশে রপ্তানিও হচ্ছে।

সরকারের পাশাপাশি বেসরকারী সংস্থার সহযোগীতা পেলে অন্যান্য দেশেও রপ্তানি করা সম্ভব বললেন পাবনা হোসিয়ারী ম্যানুফাকচারার্স গ্রুপের এই নেতা।সেইসঙ্গে ঝুট কাপড় ভারতে পাচার রোধে সরকারের সহযোগীতাও চাইলেন তিনি। সব সমস্যা কাটিয়ে আগামীতে রপ্তানি আরো বাড়বে বলছেন এই ব্যবসার সঙ্গে জড়িতরা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন