গাছের সঙ্গে বেধে নারী নির্যাতনের ঘটনায় ৩ সদস্যের তদন্ত কামিটি গঠন

0

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে গাছের সঙ্গে বেধে নারী নির্যাতনের ঘটনায় শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আমিনুল ইসলামকে প্রধান করে ৩ সদস্যের তদন্ত কামিটি গঠন করা হয়েছে।

একই সঙ্গে সময়মত ব্যবস্থা গ্রহণে ব্যর্থ হওয়ার অভিযোগে নকলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী শাহনেওয়াজ ও এসআই ওমর ফারুককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। এছাড়া প্রত্যাহার করা হয়েছে, নকলা থানার এসআই উমর ফারুককে। এদিকে, নির্যাতনের শিকার গৃহবধু ডলি খানমকে দেখতে এসে ন্যায় বিচার নিশ্চিত করার আশ্বাস দিয়েছেন, ময়মনসিংহ বিভাগের অতিরিক্ত ডিআইজি ড. আক্কাছ উদ্দিন ভূঁইয়া। এসময় শেরপুর মহিলা পরিষদ নেতৃবৃন্দ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। এরআগে, জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে গত ১০ মে নকলা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কমিশনার রূপালী বেগমের নির্দেশে চোখে-মুখে মরিচের গুড়া ছিটিয়ে ডলি খানমকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করে তার ভাসুর ও জা।এতে তার গর্ভের সন্তান নষ্ট হয়ে যায়। এঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন